বুড়িগঙ্গাতে চলবে ওয়াটার বাস

বুড়িগঙ্গা নদী পারাপারে সদরঘাট ও কেরানীগঞ্জের মধ্যে ৪টি ওয়াটার বাস চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) উন্নয়ন, আর্থিক ও প্রশাসনিক বৈঠকে সিদ্ধান্তটি নেওয়া হয়।

বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। উপস্থিত ছিলেন- নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আবদুস সামাদ ও বিআইডব্লিউটিসির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম।

সভায় জানানো হয়, বিআইডব্লিউটিসির ১২টি ওয়াটার বাস আছে। এর মধ্যে বুড়িগঙ্গা নদীতে পর্যটন কাজে ব্যবহারের জন্য একটি ওয়াটার বাস একটি প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানের কাছে চার্টার দেওয়া হয়েছে। বাকি ১১টি গাবতলী থেকে ওয়াইজঘাট ও নারায়ণগঞ্জ থেকে টঙ্গী রুটে চলাচল করছে। এগুলোর মধ্যে থেকে ৪টি ওয়াটারবাস সদরঘাট ও কেরানীগঞ্জের মধ্যে বুড়িগঙ্গা নদী পারাপারে ব্যবহার করা হবে।

বিআইডব্লিউটিসির সব যাত্রীবাহী জাহাজ ও ফেরি সার্ভিসে যাত্রীসেবার মান বৃদ্ধির ওপর গুরুত্ব দিয়েছে। সংস্থাটির স্থাবর সম্পত্তির যথাযথ ব্যবহারের ক্ষেত্রে আরও বেশি সচেতন হতে বলেছে।

সভায় জানানো হয়, বিআইডব্লিউটিসির ৪টি কন্টেইনার জাহাজ এমভি উদ্দীপন, এমভি উত্তরণ, এমভি উদয়ন ও এমভি উন্নয়ন এক্সপ্রেস ২০১৮ সালের নভেম্বর থেকে চলতি বছরের ৩১ আগস্ট পর্যন্ত সাড়ে ৪ কোটি টাকা আয় করেছে। এ সময়ে জাহাজগুলোর অপারেশনাল ব্যয় হয়েছে ২০০ কোটি ৪০ লাখ টাকা। জাহাজ ৪টি নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ১৫১ কোটি টাকা। কন্টেইনার জাহাজগুলোর নিয়মিত সার্ভিস পরিচালনার মাধ্যমে আয় বৃদ্ধির ওপর বৈঠকে গুরুত্ব দেওয়া হয়।


আরও পড়ুন