জাতীয় - প্রচ্ছদ - সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯

মিয়ানমার থেকে আসছে পেঁয়াজ

কক্সবাজারের টেকনাফ স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আসা শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে দুটি ট্রলারে করে মেসার্স সাদ্দাম ও মেসার্স সেভেন স্টার দুটি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের নামে ৫০ মেট্রিকটন পেঁয়াজ স্থলবন্দরের এসে পৌঁছেছে।

টেকনাফ স্থলবন্দর কাস্টমস সুপার আবছার উদ্দিন বলেন, মিয়ানমার থেকে পেঁয়াজ আসা শুরু হয়েছে। গত ৫ সেপ্টেম্বর প্রথম চালানে মেসার্স এন এইচ এন্টারপ্রাইজের নামে ২০ টন পেঁয়াজ এসেছিল। স্থলবন্দর ও কাস্টমসের যাবতীয় কার্যক্রম সম্পন্ন করে এসব পেঁয়াজ দেশের বাজারে পৌঁছাতে চালান করা হচ্ছে।

কাস্টমস সূত্র জানায়, গত ৫ সেপ্টেম্বর থেকে পেঁয়াজ আসা শুরু হয়েছে। এর মধ্যে কয়েকজন ব্যবসায়ী মিলে ২৩৩ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি করেছেন। এর আগে গত আগস্ট মাসেও কোনো পেঁয়াজ মিয়ানমার থেকে টেকনাফে আসেনি। দুই-তিন দিনের মধ্যে আরো ১৫০ মেট্রিক টনের মতো পেঁয়াজ টেকনাফে আসার কথা রয়েছে।

সরেজমিনে মঙ্গলবার গিয়ে দেখা যায়, পেঁয়াজ ভর্তি দুটি ট্রলার টেকনাফ স্থলবন্দরের জেটিতে এসে নোঙ্গর করে রয়েছে। শ্রমিকেরা এসব পেঁয়াজ খালাস করে ট্রাকে বোঝাই করছেন।

কয়েকজন ব্যবসায়ী বলেন, পেঁয়াজের দাম রয়েছে। তবে স্থানীয় বাজারে দাম বেড়ে যাওয়ায় মিয়ানমার থেকে পেঁয়াজ আসা শুরু হয়েছে। এর মধ্যে মিয়ানমার থেকে আরো কয়েকটি ট্রলারে করে ১৫০ মেট্রিকটনের মতো পেঁয়াজ আসার অপেক্ষায় রয়েছে। দুই-তিন দিনের মধ্যে সেগুলো বন্দরে এসে পৌঁছাবে।

স্থলবন্দর মহাব্যবস্থাপক মো. জসিম উদ্দিন বলেন, মিয়ানমার থেকে দুটি ট্রলারে পেঁয়াজ এসে পৌঁছেছে। আরো পেঁয়াজ আসার কথা রয়েছে। হঠাৎ করে স্থানীয় বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়ে যাওয়ায় সংকট মেটাতে মিয়ানমার থেকে পেঁয়াজ আনা হচ্ছে।


আরও পড়ুন