শাহজালালে ময়ূরপঙ্খীর জরুরি অবতরণ

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে রাষ্ট্রায়ত্ত বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বোয়িং ৭৩৭-৮০০ উড়োজাহাজ ল্যান্ডিং গিয়ারে সমস্যার কারণে জরুরি অবতরণ করেছে। বৃহস্পতিবার সকালে ঘটনাটি ঘটে। তবে এ ঘটনায় উড়োজাহাজটি নিরাপদে অবতরণ করেছে বলে জানান বিমানের উপ-মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) তাহেরা খন্দকার।

জানা গেছে, ঢাকা থেকে ১৪৩ জন যাত্রী নিয়ে সকাল ৮টা ৪৪ মিনিটে সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে যাত্রা করে বিমানের বিজি ০৮৪ ফ্লাইটের বোয়িং ৭৩৭-৮০০ উড়োজাহাজ ময়ূরপঙ্খী (এস২-এএইচভি)। উড্ডয়নের পর ল্যান্ডিং গিয়ার ভেতরে প্রবেশ করানোর চেষ্টা করলেও ভেতরে না যাওয়ায় ঢাকায় ফিরে আসার সিদ্ধান্ত নেন পাইলট। প্রায় এক ঘণ্টা ধরে চেষ্টার পর ব্যর্থ হয়ে পাইলট পরবর্তীতে উড়োজাহাজটি শাহজালাল বিমানবন্দরে নিরাপদে জরুরি অবতরণ করেন। 

ফ্লাইটির যাত্রীদের অন্য একটি উড়োজাহাজে সিঙ্গাপুরে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তাহেরা খন্দকার। তিনি বলেন, ‘যান্ত্রিক সমস্যার কারণে উড়োজাহাজটি টেকনিক্যাল ল্যান্ডিং করেছে।’

প্রসঙ্গত, বিমানের নিজস্ব ১০টি উড়োজাহাজের একটি ময়ূরপঙ্খী। এই বোয়িং ৭৩৭-৮০০ উড়োজাহাজ বিমানের বহরে যুক্ত হয় ২০১৫ সালের ২২ ডিসেম্বর। এ উড়োজাহাজে ব্যবহার হচ্ছে সিএফএম ইন্টারন্যাশনালের তৈরি টার্বোফ্যান ইঞ্জিন (সিএফএম ৫৬-৭বিই)। এটি বর্তমানে ঢাকা-সিঙ্গাপুর, ঢাকা-ব্যাংকক ও ঢাকা-সিলেট রুটে চলছে।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ২০০৮ সালে যুক্তরাষ্ট্রের উড়োজাহাজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং কোম্পানির সঙ্গে তিনটি মডেলের ১০টি নতুন বিমান ২ দশমিক ১ বিলিয়ন ইউএস ডলারে কেনার জন্য চুক্তি করে। ১০টি উড়োজাহাজের মধ্যে চারটি বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর, দুইটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ ও চারটি বোয়িং ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজ।


আরও পড়ুন