আন্তর্জাতিক - প্রচ্ছদ - অক্টোবর ১৬, ২০১৯

জাপানে হাগিবিসে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৭৪

জাপানে কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ টাইফুন ‘‌হাগিবিসি’র আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৭৪ জনে দাঁড়িয়েছে। আজ বুধবার সকাল পর্যন্ত কয়েক হাজার ঘরবাড়ি বিদ্যুৎ ও পানিবিহীন অবস্থায় ছিল। সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে নিখোঁজদের খুঁজে পাওয়ার আশাও ফুরিয়ে আসছে বলে জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

গত শনিবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় টাইফুন হাগিবিস জাপানের প্রধান দ্বীপ হনশুর পূর্ব উপকূল দিয়ে স্থলে উঠে মধ্য ও পূর্বাঞ্চলীয় এলাকায় ব্যাপক তাণ্ডব চালায়। এরপর থেকে প্রায় তিন দিন ধরে ১৫ জন নিখোঁজ রয়েছেন সেখানে।

টাইফুনের আঘাতে ২০০ জনেরও বেশি লোক আহত হয়েছেন। এটিকে গত ৬০ বছরের মধ্যে জাপানে আঘাত হানা সবচেয়ে শক্তিশালী টাইফুন বলে বিবেচনা করা হচ্ছে।

দুর্যোগ আঘাত হানার তিন দিন পরও প্রায় এক লাখ ৩৮ হাজার বাড়ি পানিবিহীন এবং ২৪ হাজার বাড়ি বিদ্যুৎবিহীন অবস্থায় রয়েছে। শীতের আগমনে উত্তরাঞ্চলে তাপমাত্রা নেমে যেতে থাকায় পরিস্থিতি উদ্বেগজনক হয়ে উঠছে।

সবচেয়ে বেশি হতাহত ও ক্ষয়ক্ষতির ঘটনা ঘটেছে টোকিওর উত্তরে ফুকুশিমা অঞ্চলে। এখানে আবুকুমান নদীর বাঁধ অন্তত ১৪টি স্থানে ভেঙে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে।

এ অঞ্চলের বাসিন্দারা বন্যার পানিতে ক্ষতিগ্রস্ত আসবাবপত্র ও আবর্জনা রাস্তায় এনে জড়ো করতে শুরু করেছেন। নিজেদের বাড়ি পরিষ্কার করতে অক্ষম অনেক বৃদ্ধ এখনও আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে রয়ে গেছেন।

জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে বলেছেন, ‘দুর্যোগের ক্ষয়ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে সরকার ৬৫ লাখ ডলার ব্যয় করবে।’


আরও পড়ুন