কুলিয়ারচরে ট্রাক-মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে ট্রাক-মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে শরীফ (১৮) নামে এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছে। গুরুতর আহত হয়েছে হিরন মিয়া ওরুফে হৃদয় (২০) নামে এক মোটর সাইকেল চালক।

নিহত শরীফ উপজেলার মেরাতুলি গ্রামের গোলাপ মিয়ার পুত্র। গুরুতর আহত হিরন মিয়া ওরুফে হৃদয় উপজেলার পূর্ব গাইলকাটা গ্রামের জয়নাল মিয়ার পু্ত্র। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) বিকেল সাড়ে ৪ টার দিকে শরীফকে সাথে নিয়ে হিরন মিয়া ওরুফে হৃদয় কুলিয়ারচর বাজার থেকে একটি নাম্বার বিহীন টিভিএস  মেট্রো মোটরসাইকেল চালিয়ে দ্বাড়িয়াকান্দি যাওয়ার পথে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক (ঢাকা মেট্রো- ট- ১৪-৪৪৩৫) এর সাথে দ্বাড়িয়াকান্দি-কুলিয়ারচর সড়কের বেইলি ব্রীজের পশ্চিম পার্শ্বে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে শরীফ ও হৃদয় গুরুতর আহত হয়। এ সময় স্থানীয় দ্বাড়িয়াকান্দি পল্লী বিকাশ কেন্দ্রের দুই কর্মী মোটরসাইকেল নিয়ে স্থানীয়দের সহায়তায় ট্রাকটিকে আটক করে পুলিশে দেয়।

স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় দু’জনকে প্রথমে কুলিয়ারচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য আহতদের ভাগলপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে প্রেরণ করেন। যাওয়ার পথে রাস্তায় মোটর সাইকেল আরোহী শরীফ (১৮) মারা যায়। আহত মোটর সাইকেল চালক হৃদয়কে ভাগলপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যতর চিকিৎসক তাকে আরো উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা প্রেরণ করেন। 

এ ব্যাপারে কুলিয়ারচর থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল হাই তালুকদারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, সড়ক দুর্ঘটনার সংবাদ পেয়ে তাৎক্ষণিক ভাবে পুলিশ ঘটনা স্থলে পৌছে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণের ব্যবস্থা করে। ট্রাক ও মোটর সাইকেল উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। ট্রাকের সাথে থাকা উপজেলার বড়খারচর গ্রামের মৃত লায়েছ মিয়ার ছেলে খুর্শিদ মিয়া (৫৫) ও লক্ষীপুর জেলার রামগঞ্জ উপজেলার সাতক্ষীর গ্রামের ইউসুফ মিয়ার পুত্র সজিব মিয়া (২৪) কে আটক করা হয়েছে। 

এ রিপোর্ট পর্যন্ত এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল।


আরও পড়ুন