ময়মনসিংহে লাগেজে পাওয়া লাশের পা কুড়িগ্রামে উদ্ধার!

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার বেলগাছা ইউনিয়নে একটি পুকুর পাড়ে পলিথিনে মোড়ানো দেহ বিচ্ছন্ন পা উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ ধারণা করছে, সোমবার (২১ অক্টোবর) ময়মনসিংহে একটি লাগেজের ভেতর থেকে হাত-পা ও মাথাবিহীন যে ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে তার সঙ্গে কুড়িগ্রামে উদ্ধার হওয়া বিচ্ছিন্ন পায়ের যোগসূত্র থাকতে পারে।

কুড়িগ্রামের পুলিশ সুপার মো. মহিবুল ইসলাম খান বলেন, ‘আমরা কুড়িগ্রামে উদ্ধার হওয়া পায়ের ছবির সঙ্গে ময়মনসিংহে উদ্ধার হওয়া মরদেহের ছবি মিলিয়ে দেখছি। প্রাথমিকভাবে উদ্ধার হওয়া পায়ের অংশের সঙ্গে ওই মরদেহের মিল থাকতে পারে। আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখছি।’

পুলিশ সুপার আরও বলেন, ‘উদ্ধার হওয়া পায়ের অংশ কীভাবে কুড়িগ্রামে আনা হয়েছে তা অনুসন্ধানেও কাজ শুরু করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।’

এদিকে কুড়িগ্রাম সদর থানার ওসি মাহফুজার রহমান বলেন, ‘ময়মনসিংহে উদ্ধার হওয়া খণ্ডিত দেহ পলিথিনে মোড়ানো অবস্থায় যে ধরনের উপকরণ দিয়ে বাঁধা ছিল, কুড়িগ্রামে উদ্ধার হওয়া পায়ের অংশটিও একই উপকরণ দিয়ে বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে।’

ওসি বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে আমরা ধারণা করছি, পায়ের অংশ ময়মনসিংহে উদ্ধার হওয়া ব্যক্তির। তারপরও আমরা সেখান থেকে ডিএনএ নমুনা সংগ্রহের ব্যবস্থা নিয়েছি। ময়মনসিংহ থেকে উদ্ধার হওয়া ব্যক্তির ডিএনএ নমুনার সঙ্গে উদ্ধার হওয়া পায়ের অংশের ডিএনএ নমুনার প্রতিবেদন মিলিয়ে দেখলে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে।’

প্রসঙ্গত, সোমবার সকালে ইউনিয়নের পশ্চিম কল্যাণ গ্রামের মোস্তাফিজার রহমান নামে এক ব্যক্তির বাড়ি পাশের পুকুর পাড় থেকে পলিথিনে মোড়ানো একটি দেহ বিচ্ছিন্ন পা উদ্ধার করে পুলিশ।

একই দিন ময়মনসিংহ নগরীর শম্ভুগঞ্জ ব্রহ্মপুত্র ব্রিজের পাশে পড়ে থাকা একটি লাল রঙের লাগেজের ভেতর থেকে এক ব্যক্তির হাত, পা ও মাথাবিহীন লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার সকাল ৯টার দিকে ঢাকা থেকে বোম ডিসপোজাল ইউনিটের সদস্যরা এসে লাগেজ তল্লাশি করে মৃতদেহ উদ্ধার করে।


আরও পড়ুন