ফের উত্তপ্ত রাখাইন, ৪০ সেনা-পুলিশকে অপহরণ

ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য। শনিবার (২৬ অক্টোবর) স্থানীয় সময় সকালের দিকে রাখাইনের রাজধানী সিত্তের উত্তরাঞ্চলে নৌযানে কর্তব্যরত পুলিশ ও সেনা সদস্যদের লক্ষ্য করে নদীর তীর থেকে গুলি ছোঁড়ে সশস্ত্র বিদ্রোহী সংগঠন আরাকান আর্মির সদস্যরা। পরবর্তীতে ৪০ জন পুলিশ-সেনা সদস্যকে অপহরণ করে তারা।

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর মুখপাত্র জ্য মিন জানান, শনিবার নৌপথে অফ-ডিউটি সেনা ও পুলিশ সদস্যদের নিয়ে যাওয়ার সময় তাদের বহনকারী ফেরিতে গুলি চালায় আরাকান আর্মির সদস্যরা। এ সময় ফেরিটিকে পাড়ে নিয়ে আসতে বাধ্য করা হয়।

ফেরি থেকে ১০ জনেরও বেশি সেনা, ৩০ জনের মতো পুলিশ ও দু’জন কারা সদস্যকে অপহরণ করা হয়। তাদের খুঁজতে হেলিকপ্টারের সাহায্যে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। এরইমধ্যে নদীর তীরর্বতী এলাকার আশপাশে বিদ্রোহীদের বিশাল ঘাঁটি শনাক্ত করা হয়ছে।

এ ঘটনার পর রাখাইনে বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলোর ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দেয়ার লক্ষ্যে হাজার হাজার সেনা সদস্য মোতায়েন করেছে দেশটির সেনাবাহিনী।

তবে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর এই অভিযোগের ব্যাপারে তাৎক্ষণিকভাবে আরাকান আর্মির কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। দুই সপ্তাহ আগে রাখাইনে দেশটির একটি খেলোয়াড় দলের বাসে হামলা চালিয়ে এক ডজনের বেশি ফায়ার সার্ভিস কর্মী ও বেসামরিক নাগরিককে অপহরণ করে সন্দেহভাজন বিদ্রোহীরা। এই হামলার রেশ কাটতে না কাটতেই দেশটির সেনাবাহিনী ও পুলিশ সদস্যদের অপহরণের ঘটনা ঘটল।


আরও পড়ুন