আইএসের নতুন প্রধান নেতা কুরেশি

আবু বকর আল বাগদাদির মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে বিশ্ব জুড়ে ত্রাস সৃষ্টিকারী জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস)। একই সঙ্গে নতুন দলীয় প্রধানের নাম ঘোষণা করেছে দলটি। দলের নতুন নেতার নাম আবু ইব্রাহিম আল হাশিমি আল কুরেশি।

আইএসের মুখপাত্র আবু হামজ়া আল-কুরেশি এক অডিয়ো বার্তায় তাদের নতুন প্রধানের নাম ঘোষণা করেছেন ৷ টেলিগ্রাম অ্যাপে প্রচারিত ওই অডিয়ো বার্তায় বাগদাদির মৃত্যু নিশ্চিত করে আইএস। পাশাপাশি তাদের নতুন প্রধানের নাম ঘোষণা করে যুক্তরাষ্ট্রকে নতুন করে হুমকিও দেওয়া হয়েছে।

বিশ্লেষকরা মনে করছেন, দল যাতে ছত্রভঙ্গ না হয়ে যায়, তাই তড়িঘড়ি নয়া প্রধান ঘোষণা করেছে আইএস। এছাড়াও, প্রধান ঘোষণায় দেরি হলে জঙ্গি সংগঠনটির মধ্যেই ক্ষমতার লড়াই শুরু হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা ছিল।

উল্লেখ্য, গত রবিবার মার্কিন প্রতিরক্ষা সূত্রে জানানো হয়, ইসলামিক স্টেট জঙ্গি সংগঠনের শীর্ষ নেতা আবু বকর আল বাগদাদি সিরিয়ায় ইদলিব প্রদেশের বারিশা এলাকায় এক অভিযানে নিহত হন। এ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, ‘কাপুরুষ বাগদাদি কুকুরের মতো মরেছেন।’

রোববার সকালে হোয়াইট হাউসে এক সাংবাদিক বৈঠকে ট্রাম্প বলেন, ‘গত রাতে বিশ্বের এক নম্বর জঙ্গিনেতাকে দু’ঘণ্টার অভিযানে মেরে ফেলেছে মার্কিন বাহিনী। আবু বকর আল-বাগদাদি মৃত। তিনি আইএস গোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাতা ও নেতা ছিলেন। বিশ্বের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ও হিংস্র প্রতিষ্ঠানিএটি। আমেরিকা বহু বছর ধরে বাগদাদিকে খুঁজছিল। জাতীয় সুরক্ষার ক্ষেত্রে আমার প্রশাসনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ লক্ষ্য ছিল, বাগদাদিকে ধরা বা মেরে ফেলা।’

জানা যায়, শনিবার রাতে বাগদাদিকে গ্রেপ্তারের উদ্দেশে সিরিয়ায় অভিযান চালায় মার্কিন বিশেষ বাহিনী। বেশ কিছুক্ষণ লড়াইয়ের পর একটি সুড়ঙ্গে ঢুকে পরেন আইএস নেতা। তবে সেটি থেকে বেরনোর কোনও পথ ছিল না। এসময় সুরঙ্গে ঢুকে পড়ে মার্কিন সেনাবাহিনীর কুকর। তখন দিশেহারা হয়ে নিজের সঙ্গে থাকা সুইসাইড ভেস্টের বোতাম টিপে বিস্ফোরণ ঘটায়। তার সঙ্গে মারা পড়ে তিনটি শিশু ও তার দুই স্ত্রী। এরপরই ডিএনএ টেস্ট করে বাগদাদির মৃত্যু সম্পর্কে নিশ্চিত হয় মার্কিন সেনারা।


আরও পড়ুন