দুদকে সাকিব

ম্যাচ ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব গোপন করায় সব ধরনের ক্রিকেট থেকে বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। এর মধ্যে শর্ত সাপেক্ষে মধ্যে এক বছরের শাস্তি স্থগিত করা হয়েছে।

গত ২৯ অক্টোবর থেকে ২০২০ সালের ২৯ অক্টোবর পর্যন্ত নিষিদ্ধ থাকবেন সাকিব। এই নিষেধাজ্ঞার চারদিন পর আজ রোববার দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কার্যালয়ে যান তিনি।

জানা গেছে, রোববার সকাল ১০টার দিকে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে যান সাকিব। এ সময় গণমাধ্যমের সঙ্গে কোনো কথা বলেননি এই ক্রিকেটার।

তবে কী কারণে সাকিব দুদক গেছেন সে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য এখন পর্যন্ত জানা যায়নি।

এদিকে দুদক সূত্রে জানা গেছে, সাকিব আল হাসান দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) শুভেচ্ছা দূত। তাকে আইসিসির নিষেধাজ্ঞার পরে শুভেচ্ছা দূত হিসেবে রাখা হবে কিনা এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতেই আলোচনার জন্য দুদকে ডাকা হয়েছে।


আরও পড়ুন