৬ মাসের জামিন পেলেন লতিফ সিদ্দিকী

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা মামলায় সাবেক বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকীকে ছয় মাসের জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট।

সোমবার (৪ নভেম্বর) বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি একেএম জহিরুল হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে লতিফ সিদ্দিকীর পক্ষে ছিলেন মনসুরুল হক চৌধুরী, জেয়াদ আল মালুম ও শাহ মঞ্জুরুল হক। অন্যদিকে দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান।

পরে আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেন, আদালতের এ আদেশের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগের চেম্বার আদালতে আবেদন করা হবে।

গত ২৬ সেপ্টেম্বর জামিন চেয়ে আবেদন করেন লতিফ সিদ্দিকীর আইনজীবী। গত ১ অক্টোবর তার জামিন আবেদনটি ফেরত দেন হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ। পরবর্তীতে আবার আবেদন করেন তিনি।

২০১৭ সালের ১৭ অক্টোবর দুদকের বগুড়া সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আমিনুল ইসলাম বাদী হয়ে আদমদীঘি থানায় সাবেক পাটমন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকীসহ দুজনের বিরুদ্ধে মামলা করে। মামলায় পাটকলের প্রায় আড়াই একর জমি দরপত্র ছাড়াই বিক্রির মাধ্যমে সরকারের প্রায় ৪০ লাখ ৭০ হাজার টাকা আর্থিক ক্ষতির অভিযোগ উল্লেখ করা হয়। মামলার অপর আসামি হলেন ওই জমির ক্রেতা বগুড়া শহরের কাটনারপাড়া এলাকার মৃত হারুন-অর-রশিদের স্ত্রী জাহানারা রশিদ। গত ২০ জুন এ মামলায় বগুড়ার আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদনের পর তা নামঞ্জুর করেন আদালত।

গত ২০ জুন তিনি বগুড়া সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালতে স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করলে তার জামিন বাতিল করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়। এরপর তিনি হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেন।


আরও পড়ুন