ডোমারে ৫ম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা, আটক ১

নীলফামারী ডোমারে ৫ম শ্রেণির এক শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে ইউনুস আলী(২৫) নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার বিকালে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও ডোমার থাানার এসআই আব্দুল লতিফ অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে। আটককৃত ইউনুস আলী ডোমার পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড কলেজপাড়ার মৃত মোজাম্মেল হকের ছেলে।

মামলা সুত্রে জানাযায়, ডোমার কলেজ পাড়ার রাজু ইসলামের মেয়ে শহরের শহীদ স্মৃতি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির ছাত্রী। সোমবার স্কুল থেকে বিকালে বাড়ী এসে টিউবওয়েলের পাড়ে হাত-মুখ ধোয়ার সময় বাড়ীতে একা পেয়ে পাশ্ববর্তী ইউনুস আলী পিছন দিক থেকে ওই স্কুল ছাত্রীকে ঝাপটে ধরে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এসময় শিশুটি পাষন্ড ইউনুস আলীর হাত থেকে বাচাঁর জন্য চিৎকার করলে প্রতিবেশী মেহেরুন আক্তার নামে এক মহিলা এসে তাকে রক্ষা করে। এ সময় ধর্ষণের চেষ্টাকারী ইউনুস আলী মেহেরুনকে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যায়।

শিশুটির মা রেখা বেগম জানান, সোমবার দুপুরে আমরা আত্মীয়ের বাড়ীতে দাওয়াত খেতে যাই। আমার মেয়ে স্কুলে ছিল। সে বিকালে স্কুল থেকে বাড়ীতে এসে হাত-মুখ ধোয়ার সময় আমাদের অনুপস্থিতি বুঝতে পেরে ইউনুস আলী আমার মেয়েকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়।

এ ঘটনায় শিশুটির মা রেখা বেগম বাদী হয়ে মঙ্গলবার ডোমার থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ইং সালের (সংশোধনী/০৩) ৯(৪)(খ) এর ২২ ধারায় মামলা দায়ের করেন। ডোমার থানায় মামলা নং-৬। আসামী ধরতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আব্দুল লতিফের অভিযানে ধর্ষণের চেষ্টাকারী ইউনুস আলীকে আটক করা সম্ভব হয়।

ডোমার থানা অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমান শিশু ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে মামলার বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, এ ঘটনায় ইউনুস আলী নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।


আরও পড়ুন