ইডেনে খেলা দেখবেন হাসিনা-মমতা

কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে এর আগে কোনো টেস্ট খেলেনি বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। আগামী ২২ নভেম্বর প্রথমবারের মতো ইডেনের মাটিতে ভারতের বিপক্ষে খেলতে নামবে মমিনুল হকের নেতৃত্বাধীন টাইগার দল। স্বভাবতই ম্যাচটিকে বলা হচ্ছে ঐতিহাসিক। কারণ, ম্যাচটির উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার সঙ্গে উপস্থিত থাকবেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

ইডেনে প্রথমবারের মতো গোলাপি বলে দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ দল। ইডেনের মাটিতে ওই দিন উপস্থিত থাকতে পারেন এখন পর্যন্ত ভারতের টেস্ট দলের অধিনায়কেরা।

ম্যাচটিকে স্মরণীয় করে রাখতে উদ্যোগটি নিয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের (বিসিসিআই) নতুন সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী। শুরু থেকেই নানা আয়োজনের জন্য কোমর বেঁধে নেমেছিলেন তিনি। তারই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে জানান আমন্ত্রণ। ক্রীড়ানুরাগী শেখ হাসিনা ফেলতে পারেননি সৌরভের আমন্ত্রণ। রাজি হয়েছেন তিনি। যে ম্যাচে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী উপস্থিত হবেন, সেখানে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর না থাকাটা বেমানান। সৌরভ আমন্ত্রণ জানান মমতাকেও। তিনিও রাজি হয়েছেন।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘২২ তারিখ ইডেনে ভারত-বাংলাদেশ টেস্ট আছে। সে দিন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মাঠে থাকবেন। সৌরভ আমাকে সেখানে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করেছেন। আমি ওই দিন ইডেনে যাব।’

দিবা-রাত্রির এই টেস্ট ম্যাচটিকে ঐতিহাসিক করে রাখার জন্য সব রকম চেষ্টা করে যাচ্ছে ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গল (সিএবি)। জানা গেছে, ঘণ্টা বাজিয়ে ম্যাচের উদ্বোধন করা হবে। এ সময় প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমত বন্দ্যোপাধ্যায় উপস্থিত থাকবেন।

আয়োজনে কোনোরকম কমতি রাখতে চান না বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলী। নিজেই তদারকি করছেন সবকিছু। বৈঠকের পর বৈঠক করছেন সিএবি কর্মকর্তাদের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘সব কাজ ঠিকঠাকই এগোচ্ছে। টিকিট বিক্রি ভালোই হচ্ছে। আমরা আশা করছি সব টিকিট বিক্রি হয়ে যাবে।’ 

আগামী ২২ নভেম্বর বাংলাদেশ সময় দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে শুরু হবে ঐতিহাসিক এই টেস্ট ম্যাচটি।


আরও পড়ুন