বঙ্গোপসাগরে ১৫ জেলেসহ মাছ ধরার ট্রলার নিখোঁজ

বঙ্গোপসাগরের নারিকেল বাড়িয়া এলাকায় ১৫ জেলে নিয়ে এফবি তরিকুল নামে একটি মাছ ধরা ট্রলার নিখোঁজ হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বরগুনা জেলা মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরি।

গোলাম মোস্তফা চৌধুরি জানান, বৃহস্পতিবার বরগুনা সদর উপজেলার নলী এলাকার নজরুল ইসলামের মালিকানাধীন এফবি তরিকুল নামে মাছ ধরা ট্রলারটি বঙ্গোপসাগরের নারিকেল বাড়িয়া এলাকায় বিকল হয়ে যায়। এ সময় ট্রলারে মাঝিসহ ১৫ জেলে ছিল। এরপর পার্শ্ববর্তী একটি ট্রলারের মাধ্যমে তারা বরগুনায় খবর দেয়। খবর শুনে বরগুনা থেকে একটি ট্রলার তাদের উদ্ধারে গিয়ে নারিকেল বাড়িয়া, শ্যালাসহ বিভিন্ন এলাকায় অনেক খোঁজাখুঁজি সন্ধান পায়নি।

তিনি আরো বলেন, বঙ্গোপসাগর উত্তাল রয়েছে আমরা ধারণা করছি এর ফলেই হয়তো ট্রলারটি ডুবে গেছে না হয় সুন্দরবনের কোথায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন অবস্থায় আছে। বিষয়টি আমরা যথাযথ কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি।

এদিকে ক্রমশ প্রবল হচ্ছে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’। বিকেল থেকে আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে ছুটছে প্রান্তিক উপকূলের মানুষ।

বরগুনা সদর উপজেলার, পোটকাখালী, কেওড়াবুনিয়া, বুড়িরচর, নলটোনা, এম বালিয়াতলী, ডালভাঙা, নলী, মাঝেরচর ও গুলিশাখালী এলাকায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, এসব এলাকার অধিকাংশ বাসিন্দারা আশ্রয় কেন্দ্রে যেতে শুরু করেছেন। কেউ কেউ ঘর তালাবদ্ধ করে পরিবার পরিজন ও গবাদিপশু নিয়ে ছুটছেন আশ্রয় কেন্দ্রে। আবার কেউ কেউ পৈতৃক সম্পত্তি ও ঘর ছেড়ে যেতে চাইছেন না আশ্রয় কেন্দ্রে।

তিনি আরো বলেন, ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে ব্যাপক প্রস্তুতি। প্রস্তুত রয়েছে ৫০৯ আশ্রয়কেন্দ্র, ৪২ মেডিকেল টিম, আট জরুরি সেবাকেন্দ্র ও সিপিপি, রেড ক্রিসেন্টসহ বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ১০ হাজার স্বেচ্ছাসেবক।


আরও পড়ুন