দেশের খবর - November 17, 2019

জয়পুরহাটে গৃহবধূকে পালাক্রমে ধর্ষণ

জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার বাগুয়ান এলাকার ছোট যমুনা নদী তীরের নির্জন স্থানে এক গৃহবধূকে পালাক্রমে ধর্ষণ করার অভিযোগে তার সাবেক স্বামী মেহেরুল ইসলাম (২২) ও তার সহযোগী গোপাল চন্দ্র বর্মন (২০)-কে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার সন্ধ্যায় ধর্ষণের শিকার গৃহবধূকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে রাতে জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করিয়ে দেন। ধর্ষণের অভিযোগে রাতেই উপজেলার কেশবপুর এলাকা থেকে গৃহবধূর সাবেক স্বামী ও তার সহযোগীকে আটক করতে সক্ষম হলেও অপর সহযোগী পালিয়ে যায়।

আটককৃতরা হলেন- ধর্ষিতার সাবেক স্বামী ও একই উপজেলার কেশবপুর গ্রামের সাইফুলের ছেলে মেহেরুল ইসলাম ও ভোজন চন্দ্র বর্মনের ছেলে গোপাল চন্দ্র বর্মন ।

পাঁচবিবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুনসুর রহমান জানান, ফরিদুপরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার চর আজমপুর গ্রামের এক গার্মেন্টস তরুণী শ্রমিকের সাথে মেহেরুলের পরিচয় হয় ঢাকায়। পরবর্তীতে গত এক বছর পূর্বে তাদের বিয়ে হলেও মেহেরুল মেয়েটিকে ঢাকায় ফেলে রেখে বাড়িতে পালিয়ে এসে তাকে তালাক দেয়। স্ত্রীর স্বীকৃতি পেতে ওই তরুণী চাপ দিতে থাকলে মেহেরুল তাকে একাই পাঁচবিবিতে আসতে বলেন। মেহেরুলের কথামত মেয়েটি পাঁচবিবি আসলে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী তাকে বাড়ি নেওয়ার কথা বলে মেহেরুল নদী তীরের নির্জন স্থানে নিয়ে যান। সেখানে মেহেরুলসহ ৩ জন পালাক্রমে ওই তরুণীকে ধর্ষণ করতে থাকেন। মেয়েটির আর্তচিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে ৩ ধর্ষক পালিয়ে যায়।

পরে মেয়েটিকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হপাসপাতালে ভর্তি করিয়ে দেন। পুলিশ তাৎক্ষনিক অভিযান চালিয়ে শনিবার রাতেই মেহেরুল ও গোপালকে আটক করতে সক্ষম হয়। মামলার প্রস্ততিও চলছে বলে জানান ওসি।


আরও পড়ুন