দুই সিটির ভোট পেছানো নিয়ে আদালতের দিকে তাকিয়ে ইসি

ঢাকার দুই সিটির নির্বাচনের ঘোষিত তারিখ ৩০ জানুয়ারি সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সরস্বতী পূজা থাকায় ভোটগ্রহণের বিষয়ে মঙ্গলবার আদেশ দেওয়া হবে।

এ সংক্রান্ত এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে সোমবার বিচারপতি জেবিএম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের বেঞ্চ আদেশের এ দিন ধার্য করেছেন।

রিটের পক্ষে আদালতে শুনানি করেন রিটকারী আইনজীবী অশোক কুমার ঘোষ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নূর-উস-সাদিক।

ঢাকার দুই সিটির নির্বাচনের ঘোষিত তারিখ ৩০ জানুয়ারি সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সরস্বতী পূজা থাকায় আইনজীবী অশোক কুমার ঘোষ রবিবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিটটি করেছিলেন।

রিটে ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ঘোষিত তারিখ ৩০ জানুয়ারি কেন বেআইনি ও আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না মর্মে রুল চাওয়া হয়েছে। এতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার, স্বরাষ্ট্র সচিব, আইন সচিব, নির্বাচন কমিশন সচিব ও ঢাকার জেলা প্রশাসককে রিটে বিবাদী করা হয়েছে।

অশোক কুমার বলেন, ‘২৯ জানুয়ারি আধাবেলা থেকে ৩০ জানুয়ারি আধাবেলা পর্যন্ত সরস্বতী পূজা। এই পূজাটি দেশের প্রায় সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হয়ে থাকে। ৩০ জানুয়ারি নির্বাচন হলে তার কয়েক দিন আগেই ভোটের কার্যক্রম শুরু হবে। এতে পূজা পালনে বিঘ্ন ঘটবে বা পূজার আচার-আনুষ্ঠানিকতা বাধাগ্রস্ত হবে।’

এর আগে ৩০ জানুয়ারি ভোটগ্রহণের দিন রেখে গত ২২ ডিসেম্বর ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। শুক্রবার থেকে ভোটের মাঠে প্রচারণায় নেমেছেন প্রার্থীরা।


আরও পড়ুন