কুলিয়ারচরে গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যবাহী ঘোড়া দৌড়

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যবাহী ঘোড়া দৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলার গোবরিয়া আব্দুল্লাহপুর ইউনিয়নের পশ্চিম গোবরিয়া ব্রহ্মপুত্র নদেরপাড় মাঠে এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। স্থানীয়রাসহ আশপাশ এলাকার হাজার হাজার নারী, পুরুষ ও শিশু-কিশোর গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যবাহী এই ঘোড়া দৌড় প্রতিযোগিতা উপভোগ করে।

প্রতিযোগিতায় কিশোরগঞ্জ, নরসিংদী, গাজীপুর, নেত্রকোনা, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ ও সিলেট অঞ্চলের প্রায় ৩০টি ঘোড়া অংশ নেয়। ছোট, মাঝারি ও বড় এই তিন ভাগে বিভক্ত হয়ে ঘোড়াগুলো প্রতিযোগিতায় প্রতিদ্বদ্বিতা করে। এতে ছোট ঘোড়া বিভাগে মোশারফ মিয়ার ঘোড়া প্রথম, দয়াল মিয়ার ঘোড়া দ্বিতীয় ও আবুল হোসেন ড্রাইভারের ঘোড়া তৃতীয় স্থান লাভ করে। মধ্যম ঘোড়া বিভাগে শাহাব উদ্দিন মিয়ার ঘোড়া প্রথম, দুলাল মিয়ার ঘোড়া দ্বিতীয় ও সাজিদ মিয়ার ঘোড়া তৃতীয় স্থান লাভ করে। আর বড় ঘোড়া বিভাগে সবুজ মিয়ার ঘোড়া প্রথম, আবুল হোসেন ড্রাইভারের ঘোড়া দ্বিতীয় ও মুমিন মিয়ার ঘোড়া তৃতীয় স্থান লাভ করে।

প্রতিযোগিতা শেষে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী কলেজ পরিদর্শক মুহাম্মদ আলী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট সমাজসেবক মো. সাইফুল ইসলাম।

পুরস্কার বিতরণের আগে প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, প্রাচীনকাল থেকে আবহমান গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্য এই ঘোড়া দৌড়। এই ঐতিহ্যকে লালন করে ধারাবাহিক ভাবে প মবারের মতো এই উৎসবের আয়োজন করায় আয়োজকসহ এলাকাবাসীকে ধন্যবাদ জানাই। শহরের যান্ত্রিকতা আজ আমাদের প্রত্যন্ত গ্রামগুলোকেও ধীরে ধীরে গ্রাস করছে। ফলে হারিয়ে যাচ্ছে আমাদের ঐতিহ্যের সব অনুষঙ্গকে। জাতি হিসেবে নিজেদের পরিচয়কে অক্ষুন্ন রাখতে নিজেদের গ্রামীণ ঐতিহ্যকে লালন করতে সবার প্রতি আহবান জানান তিনি।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সমাজসেবক মো. সাইফুল ইসলাম এমন আয়োজনে এলাকাবাসীর পাশে সবরকম সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন।

বড় ঘোড়া বিভাগে প্রথম পুরস্কার হিসেবে দেওয়া হয় একটি গরুর বাছুর, দ্বিতীয় পুরস্কার একটি খাসি ও তৃতীয় পুরস্কার একটি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল সেট। মাধ্যম বিভাগের প্রথম পুরস্কার একটি ২৪ ইি এলইডি টেলিভিশন, দ্বিতীয় পুরস্কার একটি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল সেট ও তৃতীয় পুরস্কার একটি সাধারণ মোবাইল সেট।

ছোট ঘোড়া বিভাগের প্রথম পুরস্কার একটি ১৬ ইি এলইডি টেলিভিশন, দ্বিতীয় পুরস্কার একটি সেম্পনী মোবাইল সেট ও তৃতীয় পুরস্কার হিসেবে দেওয়া হয় একটি সাধারণ মোবাইল সেট। এ ছাড়াও প্রত্যেক অংশগ্রহনকারীকে সান্ত্বনা পুরস্কার হিসেবে দেওয়ার হয় একটি করে সাধারণ মোবাইল সেট।

এদিকে এই ঘোড়া দৌড়কে কেন্দ্র করে পুরো এলাকায় সাজ সাজ রব ওঠে। দুপুর থেকেই দর্শনাথীরা মাঠে এসে নিজেদের জায়গা দখল করে নেয়। হাজার হাজার লোকের সমাগমকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন খাদ্যদ্রব্যসহ ব্যবহার্য জিনিসপত্রের পসরা সাজিয়ে বসে বিক্রেতারা। ফলে গ্রামীণ মেলায় রূপ নেয় মাঠটি।


আরও পড়ুন