জাতীয় - প্রচ্ছদ - January 16, 2020

খুব শিগগিরই আইটি আয় গার্মেন্টসকে ছাড়িয়ে যাবে : জয়

দেশের তথ্যপ্রযুক্তি (আইটি) খাত নিয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রীর আইসিটিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। তিনি বলেন, দেশের তথ্যপ্রযুক্তি (আইটি) খাতটি খুব দ্রুত সম্প্রসারিত হওয়ায় এই খাতের আয় খুব অল্প সময়ের মধ্যেই গার্মেন্টস খাতের আয়কে ছাড়িয়ে যাবে।

বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) রাজধানীর বিআইসিসি হলে তিন দিনব্যাপী ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সজীব ওয়াজেদ জয় এ কথা বলেন।

জয় বলেন, ‘আজ অফিশিয়াল রেকর্ড অনুযায়ী আইটি খাতে বাংলাদেশের রফতানি ১০০ কোটি মার্কিন ডলার ছাড়িয়ে গেছে। আমি বিশ্বাস করি, খুব অল্প সময়ের মধ্যে আমাদের প্রযুক্তি খাতের রফতানি গার্মেন্টস খাতকে অতিক্রম করবে।’

তিনি আরও বলেন, অধিকাংশ আইটি সেবা ইন্টারনেটভিত্তিক ও ইন্টারনেটের মাধ্যমেই এ খাতে রফতানি হচ্ছে। তাই প্রকৃতপক্ষে কী পরিমাণ রফতানি হচ্ছে, তা জানা সম্ভব নয়।

প্রধানমন্ত্রীর আইসিটিবিষয়ক উপদেষ্টা বলেন, ‘আমরা বিশ্বাস করি যে, আইটি খাত থেকে ইন্টারনেটের মাধ্যমে আন–অফিসিয়ালি অন্তত আরও ১০০ থেকে ২০০ কোটি মার্কিন ডলার রফতানি হচ্ছে। কিন্তু তা জানা যাচ্ছে না। তাই আমাদের আইটি সেবা গার্মেন্টস শিল্পের রফতানি আয়কে ছড়িয়ে যাওয়ার পথেই এগোচ্ছে।’

তিনি বলেন, বাংলাদেশ হার্ডওয়্যার রফতানি করছে। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে মোবাইল ফোন, টেলিভিশন ও স্মার্ট ডিভাইস এবং এই রফতানি অত্যন্ত দ্রুত ও ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। অতএব আইসিটি খাত যে গার্মেন্টস শিল্পকে ধরার পথে ভালোভাবেই এগিয়ে যাচ্ছে, এতে তারই প্রতিফলন ঘটছে।

জয় বলেন, যেখানে এক দশক আগেও বাংলাদেশ সব ধরনের মোবাইল ফোন আমদানি করত সেখানে এ খাতের অগ্রগতি কল্পনাও করা যায় না। তিনি বলেন, একসময় আমরা নিয়মিত প্রতি বছর তিন কোটি মোবাইল ফোন আমদানি করতাম। আর এখন বাংলাদেশে দুই কোটি মোবাইল উৎপন্ন হয়।

জয় আশা প্রকাশ করে বলেন, বিশ্বের অন্যান্য দেশের সঙ্গে আমাদের দেশেও ৫জি প্রযুক্তি চালু হবে।

ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তফা জব্বারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিবিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান এ কে এম রহমত উল্লাহ্, হুয়াওয়ে টেকনোলজি (বাংলাদেশ) লিমিটেডের সিইও ঝাং ঝেংজুন এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব নূর-উর রহমান।


আরও পড়ুন