দেশের খবর - January 18, 2020

কমলগঞ্জে দিনব্যাপী পিঠা উৎসব ২০২০

রাজু দত্ত ।। মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলায় বাহারি নামের স্টল সাজিয়ে ব্যাপক উদ্দীপনায় কমলগঞ্জ সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে শুরু হয়েছে দিনব্যাপী পিঠা উৎসব ২০২০। শনিবার (১৮ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১১টায় আনুষ্ঠানিকভাবে এ পিঠা উৎসবের উদ্বোধন করেন কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. রফিকুর রহমান।

কমলগঞ্জ পিঠা উৎসব উদযাপন কমিটির সভাপতি সাংবাদিক সাজিদুর রহমানের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. রফিকুর রহমান। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথিসহ অতিথিদের উত্তরীয় পরিয়ে বরণ করে নেওয়া হয়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে প্রধান অতিথিসহ অতিথিরা প্রতিটি স্টল ঘুরে দেখেন।

কমলগঞ্জ সরকারি গণ মহাবিদ্যালয়, কমলগঞ্জ আব্দুল গফুর চৌধুরী মহিলা কলেজ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান,সামাজিক সংগঠন ও ব্যক্তি প্রতিষ্ঠানের বাহারি নামের ৪০টি পিঠার স্টল নিয়ে এ পিঠা উৎসব শুরু হয়েছে।

সোনার তরী পিঠা ঘর, বিবিখানা পিঠা ঘর, অন্নপূর্ণা পিঠাঘর,রসুই পিঠা ঘর,রংধনু পিঠা ঘর, পিঠামহল, লোকবাংলা, পৌষের পিঠা কুঠির, পিঠাঘর, মিষ্টি পিঠাঘর, পিঠা প্যালেস,অংকুর পিঠা, হট এন্ড কোল্ড, বন্ধু মহল, বাঙালী পিঠা ঘর, আম্বিয়া কেজি স্কুলঘরসহ বাহারি নামের প্রতিটি স্টলে ছিল প্রায় ৫০ ধরণের পিঠা।

উদ্বোধনের পর থেকে উপস্থিত অতিথিরা একে একে মঞ্চে উঠে এ পিঠা উৎসব নিয়ে তাদের অনুভূতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন। কমলগঞ্জ পিঠা উৎসব উদযাপন কমিটির সভাপতি সাজিদুর রহমান বলেন,

বাঙালির খাদ্য সংস্কৃতিতে পিঠা অবিচ্ছেদ্য একটি অংশ। পৌষ-মাঘের শীতে পিঠা উৎসবে মাতোয়ারা হয় দেশবাসী। এই ঋতুটি যেন পিঠা খাওয়ার উপযুক্ত সময়। এ শীতে এলাকাবাসীকে মনভোলানো পিঠার স্বাদ দিতে আজ শনিবার কমলগঞ্জ মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে পিঠা উৎসব উদযাপন কমিটির আয়োজনে দিনব্যাপী আয়োজন করা হয়েছে কমলগঞ্জ পিঠা উৎসব-২০২০। পিঠা উৎসবকে কেন্দ্র করে শুরু হয়েছে উৎসাহ উদ্দীপনা ও উৎসবের আমেজ।

তার প্রমাণ হচ্ছে ক্রেতা ও দর্শক উপস্থিতি। বেশ কয়েক বছর আগেও প্রথম কমলগঞ্জে পিঠা উৎসব হলেও সেটি ধারাবাহিকতা রক্ষা করেনি। এখন থেকে প্রতি বছর কমলগঞ্জে এভাবে পিঠা উৎসব হবে। তিনি আরও বলেন, সন্ধ্যার পর শুরু হবে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।


আরও পড়ুন