দেশের খবর - January 24, 2020

কমলগঞ্জে বেওয়ারিশ কুকুরের উপদ্রব

রাজু দত্ত ।। মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলায় বেওয়ারিশ কুকুরের উপদ্রব লক্ষ্য করা গেছে। উপজেলার আলীনগর ইউনিয়নের হালিমা বাজার মুন্সিবাজার ইউনিয়ন এর ঠাকুর বাজার ৮ নং মাধবপুর ইউনিয়নের মাধবপুর বাজার এলাকায় এসব বেওয়ারিশ কুকুরের বেশি উপদ্রব লক্ষ করা গেছে। পৌর এলাকার পৌর চৌমুহনী, ভানুগাছ বাজার চৌমুহনীতে বেওয়ারিশ কুকুরের এলোপাতাড়ি দৌড়াদৌড়ি রয়েছে। ফলে কলেজ ছাত্র-ছাত্রীসহ স্কুল পড়ুয়া শিক্ষার্থী অভিভাবক ও পথচারীরা রয়েছেন উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায়। গলায় বেল্ট হীন এসব কুকুরের কামড়ে কারো কারো হচ্ছে জলাতঙ্ক রোগ।

ভানুগাছ এলাকার ধলাই নদী সংলগ্ন মনিপুরী পাড়ার মাঝি জানান, গত কিছুদিন আগে বেওয়ারিশ কুকুরের আক্রমণে তার একটি ছাগল মারা গেছে। রাস্তাঘাটে গলায় বেল্ট বা বেল্ট হীন এসব কুকুরের অবাধে চলাফেরার কারণে বাড়ছে মোটর বাইক দুর্ঘটনা এবং মারা পড়ছে কিছু কিছু বেওয়ারিশ কুকুর।

শমশেরনগর ইউনিয়নের শংকরপুর গ্রামের সাদ্দাম মিয়া জানান, এ উপজেলার পাত্রখোলা এলাকায় যাবার পথে পুষ্প কানু চেয়ারম্যানের বাসার নিকটে গত রবিবার সকালে একটি কুকুর ছানার এলোপাতাড়ি দৌড়ে এসে তার মোটর সাইকেলের চাকায় পিষ্ট হয়ে মারা যায়, এবং সাইকেলসহ তার ছোট ভাই সহ তারা দুজন ছিটকে পড়ে আঘাতপ্রাপ্ত হন।

আরো জানা যায়, কমলগঞ্জ সদর ইউনিয়নের বালিগাঁও গ্রামের রফিক মিয়ার একটি এবং পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ড গোপালনগর গ্রামের ব্যবসায়ী টিটু মিয়ার আরেকটি ছাগলকে বেওয়ারিশ কুকুর আক্রমণ করে কামড়ালে আক্রান্ত হয়ে এদুটো ছাগল মারা যায়। দলবেঁধে একসঙ্গে অনেক কুকুরের ঘেউ ঘেউ ডাকে বিরক্ত হচ্ছেন স্থানীয়রা। কখনো পথশিশু কখনো দিনমজুর এসব বেওয়ারিশ কুকুরের আক্রমণের শিকার হচ্ছেন।মধ্যবয়সি শেষ কলেজ ছাত্র-ছাত্রীসহ রাস্তায় চলাচল কারীরা এসব বেওয়ারিশ কুকুরের উপদ্রবে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন। কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পৌরসভায় কুকুর কামড়ানো কালীন ভ্যাকসিন ইনজেকশন না থাকায় আক্রান্ত রোগীরা পড়ছেন বিপাকে। ফলে স্থানীয়রা অনতিবিলম্বে কমলগঞ্জের গুরুত্ব হাটবাজার ও জনবহুল স্থান থেকে শুরু করে সর্বত্র কুকুর নিধনের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে।


আরও পড়ুন