দেশের খবর - February 1, 2020

ভারত-বাংলাদেশের জনগণের সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ হচ্ছে : রেলমন্ত্রী

ভারত বাংলাদেশের সরকার টু সরকার যেমন সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ হয়েছে, এখন জনগন টু জনগন সর্ম্পক ঘনিষ্ঠ হচ্ছে বলে মন্তব্য করেন বাংলাদেশ সরকারের রেলপথ মন্ত্রী এ্যাডভোকেট নূরুল ইসলাম সুজন এমপি।

শুক্রবার (৩১ জানুয়ারী) দুপুরে ভারত-বাংলাদেশের ৭৮২ নং পিলারের কাছে অনুষ্ঠিত চিলাহাটী-হলদীবাড়ী রেলপথের নির্মান কাজে বিএসএফ ও বিজিবির সমন্বয় বৈঠকে তিনি এ কথা বলেন।

২০২২ সালের মধ্যে মংলা বন্দর থেকে শিলিগুড়ি পর্যন্ত রেল সংযোগ তৈরী হবে এবং চলতি বছরের জুন মাসে চিলাহাটী-হলদীবাড়ি রেল পথের নির্মাণ কাজ শেষ হবে বলে তিনি আশা করেন। এই রেল পথটি নির্মিত হলে উভয় দেশ অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হওয়ার পাশাপাশি ভারত কলকাতা থেকে বাংলাদেশের ভূমি ব্যবহার করে এ অঞ্চলে রেলগাড়ী চালাতে চাইলে সময় বাঁচাতে পারবে বলে তিনি জানান।

এ ছাড়া এই রেলপথের সাথে ভারতের পাশাপাশি নেপাল, ভুটানও যুক্ত হওয়ার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

বৈঠকে নীলফামারী জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোখলেছুর রহমান, বিজিবি ৫৬ ব্যাটালিয়নের অধিনাক মামুনুল হক, বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চরের প্রধান প্রকৌশলী আল ফাত্তাহ্ মাসুদুর রহমান, প্রকল্প পরিচালক আব্দুর রহিম, নীলফামারী পৌর মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ, ডোমার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ.লীগের সাধারন সম্পাদক তোফায়েল আহমেদ, নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিনা শবনম এবং ভারতীয় বিএসএফ ৬৫ ব্যাটালিয়েনের সেকেন্ড ইন কমা- জগদীশ দাওয়াই, উত্তরাঞ্চল রেলের প্রধান নির্বাহী প্রকৌশলী প্রবীর কুমার দে, প্রকল্প প্রকৌশলী তপন দাস উপস্থিত ছিলেন।


আরও পড়ুন