অপরাধ - February 10, 2020

সাঈদ খোকনের এপিএসকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ

অর্থ আত্মসাৎ ও ক্যাসিনো ব্যবসাসহ অন্যান্য অবৈধ কর্মকাণ্ডে জড়িত থেকে অর্থ পাচার ও জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র সাঈদ খোকনের এপিএস কাজী আবুল কালাম আজাদকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

সোমবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টা থেকে সংস্থাটির প্রধার কার্যালয়ে দুদক পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেন’র নেতৃত্বে একটি টিম তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে।

অভিযোগে বলা হয়, ঠিকাদার জিকে শামীমসহ বিভিন্ন ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে সরকারি কর্মকর্তাসহ প্রভাবশালীদের শত শত কোটি টাকা ঘুষ দিয়ে বড় বড় ঠিকাদারি কাজ নিয়ে বিভিন্ন অনিয়মের মাধ্যমে সরকারি অর্থ আত্মসাত, ক্যাসিনো ব্যবসা ও অন্যান্য অবৈধ কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে শত শত কোটি টাকা অবৈধ প্রক্রিয়ায় বিদেশে পাচার এবং জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জন সংক্রান্ত অভিযোগ রয়েছে।

এর আগে একই অভিযোগে মেয়র সাঈদ খোকনের অপর পিএস-২ শেখ কুদ্দুসকে জিজ্ঞাসাবাদ করে দুদক।

তখন জিজ্ঞাসাবাদ শেষে শেখ কুদ্দুস বলেছিলেন, অভিযোগের তদন্তের স্বার্থে দুদকে ডাকা হয়েছিল। বক্তব্য প্রদান করেছি। এর বাইরে বেশি কিছু বলা যাবে না।

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে এ পর্যন্ত ২০টি মামলা দায়ের করে দুদক। কমিশনের পরিচালক সৈয়দ ইকবালের নেতৃত্বে আট সদস্যের একটি টিম অনুসন্ধানের দায়িত্ব পালন করছেন।

অপর সদস্যরা হলেন- উপ-পরিচালক মো. জাহাঙ্গীর আলম, মো. সালাহউদ্দিন, গুলশান আনোয়ার প্রধান, সহকারী পরিচালক মামুনুর রশীদ চৌধুরী, সাইফুল ইসলাম, আতাউর রহমান ও মোহাম্মদ নেয়ামুল আহসান গাজী।


আরও পড়ুন