লক্ষ্মীপুরে ধর্ষণ মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরের কিশোরী ধর্ষণ মামলায় আব্দুর রহিম নামে এক যুবককে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া একই মামলায় মো.হেলাল নামে অপর আসামিকে ৫ বছরের কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে।

সোমবার লক্ষ্মীপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ সিরাজুদ্দৌলাহ কুতুবী এ রায় দেন।

লক্ষ্মীপুর জজকোর্টের স্পেশাল পিপি আবুল বাশার রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আদালত ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালের ১০ অক্টোবরে বিয়ের প্রলোভনে কমলনগরের হাজিরহাট এলাকার মেঘনা সিনেমা হলে নিয়ে কিশোরীকে সম্ভ্রমহানি করে আব্দুর রহিম। পরের দিন বিকেলে ভুক্তভোগী কিশোরীর ভাই বাদী হয়ে কমলনগর থানায় মামলা করেন।

মামলায় স্থানীয় চর মার্টিন এলাকার বাসিন্দা আব্দুর রহিম, মো. হেলাল ও শ্যাম সুন্দরকে আসামি করা হয়। পরে পুলিশের অভিযোগ দাখিল ও স্বাক্ষীদের স্বাক্ষ্য গ্রহণ শেষে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় আদালত আসামি আব্দুর রহিমকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড এবং মো.হেলালকে ৫ বছরের সাজার রায় দেন। একই সঙ্গে যাবজ্জীবন সাজার আদেশপ্রাপ্ত আসামির ১০ হাজার টাকা ও অপর সাজাপ্রাপ্তের ৫ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে প্রত্যেকের আরও এক মাসের সশ্রম কারাদন্ড দেওয়া হয়। রায়ের সময় মামলার প্রধান আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন না।

এ মামলায় শ্যাম সুন্দর নামে অপর আসামি নির্দোষ প্রমাণিত হওয়ায় তিনি খালাস পেয়েছেন।


আরও পড়ুন