রাজনীতি - 1 week ago

তাপসের ঢাকা-১০ আসনে মনোনয়ন চান সাঈদ খোকন

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে মনোনয়ন বঞ্চিত সাঈদ খোকন এবার ঢাকা-১০ আসনের উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হতে চান।

শুক্রবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে মনোনয়ন ফরম জমা দেন তিনি।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান জানিয়েছেন, ঢাকা ১০ আসনে মোট ১০ জন মনোনয়নপত্র কিনেছেন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে নৌকার প্রার্থী হয়ে ঢাকা-১০ আসন সংসদ সদস্য পদ থেকে পদত্যাগ করেন ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস। ইতিমধ্যে ১ ফেব্রুয়ারি ডিএসসিসি নির্বাচনে তিনি মেয়র পদে বিজয়ী হন।

এর আগে ঢাকা-১০ সংসদীয় আসনে নৌকার মনোনয়ন পেতে ফরম সংগ্রহ করেছেন এফবিসিসিআই এর সাবেক সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন।

ঢাকা-১০ আসনের এমপি শেখ ফজলে নূর তাপস পদ ছেড়ে ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচন করায় তার সংসদীয় আসনটি শূন্য ঘোষণা করে ২৯ ডিসেম্বর গেজেট প্রকাশ করেছে সংসদ সচিবালয়। ১ ফেব্রুয়ারি ভোটে জিতে তিনি ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়র নির্বাচিত হন। তফসিল অনুযায়ী, তিন আসনের উপ-নির্বাচনে ১৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মনোনয়নপত্র দাখিল করা যাবে। ২৩ ফেব্রুয়ারি বাছাইয়ের পর ২৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রার্থিতা প্রত্যাহারের সুযোগ থাকবে। ১ মার্চ প্রতীক বরাদ্দের পর শুরু হবে প্রচার। ভোটগ্রহণ হবে ২১ মার্চ।

দলের দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া জানান, আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৭টায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভা হবে। সভায় চূড়ান্ত হবে ঢাকা-১০ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী কে হবেন।’

উল্লেখ্য, ঢাকা-১০ আসন ছাড়াও আরো ৪টি আসনে উপ-নির্বাচন হবে। বাগেরহাট-৪ আসনের সংসদ সদস্য সাবেক প্রতিমন্ত্রী মো. মোজাম্মেল হোসেন ১০ জানুয়ারি এবং গাইবান্ধা-৩ আসনের সাংসদ মো. ইউনুস আলী সরকার গত বছর ২৭ ডিসেম্বর মারা যান। পরে তাদের আসন দুটিও শূন্য ঘোষণা করে উপ-নির্বাচনের তফসিল দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

এছাড়া যশোর-৬ ও বগুড়া-১ আসনেও সংসদ সদস্য মারা যাওয়ায় সম্প্রতি ওই আসন দুটো শূন‌্য ঘোষণা করা হয়।


আরও পড়ুন