জাতীয় - প্রচ্ছদ - February 15, 2020

দেশের সর্বত্র চলছে উন্নয়ন : পরিবেশ ও বন মন্ত্রী

উত্তরাঞ্চল বা দক্ষিনাঞ্চল বলে কোন কথা নাই, দেশের সর্বত্র উন্নয়ন চলছে। যে এলাকায় যা উন্নয়ন করলে সমগ্র দেশের মানুষের কল্যাণ হবে, সেখানে তাই করছে প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। শনিবার দুপুর নীলফামারীর ডোমারে দেশের আঞ্চলিক পর্যায়ে প্রথম আঞ্চলিক বাঁশ গবেষণা ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের উদ্বোধনকালে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর প্রভাব রুখতে বাংলাদেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। আমরা দেশের ভূ-খন্ডে ২৫ ভাগেরও বেশী জায়গায় গাছ লাগানো জন্য কাজ করছি। আশাকরি দ্রুত তা হয়ে যাবে।

তিনি আরো বলেন, সারা দেশের বাঁশের চাহিদা পূরণে নীলফামারীর বাঁেশর যোগান গুরুত্বপূর্ন। উন্নত জাতের বাঁশের জাত উদ্ভাবন করে এ এলাকায় বাঁশ চাষ ও আসবার পত্রের ব্যবহার আরো বেড়ে যাবে।

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব জিয়াউল হাসান এনডিসির সভাপতিত্বে এসময় নীলফামারী-১ আসনের সংসদ সদস্য আফতাব উদ্দিন সরকার, বন অধিদপ্তরের প্রধান বন সংরক্ষক শফিউল আলম চৌধুরী, অতিরিক্ত সচিব (পরিবেশ) মাহমুদ হাসান, অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) আহমদ শামীম আল রাজী, নীলফামারী জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী, জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) এবিএম আতিকুর রহমান, ডোমার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান তোফায়েল আহমেদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিনা শবনম, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি খায়রুল আলম বাবুল, ডোমার আঞ্চলিক বাঁশ গবেষণা ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, বাংলাদেশ বন গবেষণা ইনস্টিটিউট প্রকল্প পরিচালক ড. রফিকুল হায়দার উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ বন গবেষণা ইনস্টিটিউট চট্টগ্রাম এর বাস্তবায়নে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রাণালয়ের অধীনে প্রায় ১৮ কোটি টাকা ব্যয়ে নীলফামারীর ডোমার উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন দুই একর জমির উপর কেন্দ্রটি নির্মান করা হয়।

উল্লেখ্য যে, উক্ত কেন্দ্রে ল্যাবরেটরী স্থাপন ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্রসহ একটি চারতলা ভবন ইতিপূবে নির্মাণ করা হয়েছে। এ কেন্দ্রে রংপুর বিভাগের ৫৮টি উপজেলার এক হাজার ৮ শত জনকে বাঁশের বিভিন্ন প্রযুক্তি সম্পর্কে প্রশিক্ষণ প্রদান, বাঁশের প্রযুক্তি বিষয়ক ১০টি প্রদর্শনী প্লট প্রকল্প এলাকায় স্থাপন করা ও বাঁশ চাষ ব্যবস্থাপনা এবং ব্যবহারের উপর ১৯টি গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে বলে।


আরও পড়ুন