কুলিয়ারচর - February 23, 2020

কুলিয়ারচরে বেশিরভাগ বিদ্যালয়ে স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন অনুষ্টিত হয়নি

শিশুদের মাঝে বাল্যকাল থেকেই গণতান্ত্রিক মনোভাব গঠনের লক্ষে সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী সারাদেশের ন্যায় কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলার ৭৪ টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একযোগে স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন-২০২০ অনুষ্টিত হওয়ার কথা থাকলেও মাত্র কয়েকটি বিদ্যালয় ব্যতীত সরকারী নির্দেশ তোয়াক্কা না করে যথা সময়ে বেশিরভাগ বিদ্যালয়ে নির্বাচন সম্পন্ন করেনি বলে জানা যায়।

রোববার (২৩ ফেব্রুয়ারী) উপজেলার বিভিন্ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নির্ধারিত সময় পার হলেও উপজেলা ১৯নং আব্দুল্লাহপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৬৯নং দক্ষিন আব্দুল্লাহপুর আফতাব উদ্দিন ভূইয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, উত্তর সালুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সহ বেশিরভাগ বিদ্যালয়ে নির্বাচন অনুষ্টিত হয়নি। তবে ৪৩নং দড়িগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ১৩ নং লক্ষীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৫২ নং ডুমরাকান্দা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ কয়েকটি বিদ্যালয়ে সিলেকশানে নির্বাচন হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা যায় ।

এছাড়া শিক্ষার্থীদের সরাসরি ভোট প্রয়োগের মাধ্যমে উপজেলার ১নং কুলিয়ারচর সরকারী
প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৪১ নং কুলিয়ারচর বাজার আদর্শ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৫০নং বড়খারচর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ২৯ নং কান্দিগ্রাম সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ছয়সূতী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন-২০২০ অনুষ্টিত হয়।

১৯নং আব্দুল্লাহপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) শরীফা আক্তার, ৬৯নং দক্ষিন আব্দুল্লাহপুর আফতাব উদ্দিন ভূইয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মিজানুর রহমান বলেন, আগরপুর ক্লাস্টারের দায়িত্বে থাকা উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার নাসিমা বেগম তাদের দেরীতে নির্বাচনের সংবাদ দেওয়ায় যথা সময়ে তারা নির্বাচন সম্পন্ন করতে পারিনি।

৪৩নং দড়িগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ সেলিম মিয়া, ১৩ নং লক্ষীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ ওসমানগণি, ৫২ নং ডুমরাকান্দা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ গোলাম মোস্তফা বলেন, শিক্ষার্থীরা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে আগ্রহী না হওয়ায় তাদের বিদ্যালয়ে বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় নির্বাচন অনুষ্টিত হয়েছে।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার সৈয়দ আবুল খায়েরের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন,
উপজেলার ৭৪ টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একযোগে স্টুডেন্টস কাউন্সিল নির্বাচন-২০২০ হওয়ার কথা। তবে কিছু বিদ্যালয়ে সিলেকশানে নির্বাচন হয়েছে বলে শুনেছি।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যদি কোন বিদ্যালয় নির্বাচন সম্পন্ন না করে থাকে তাহলে তদন্ত সাপেক্ষে তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও পড়ুন