অপরাধ - প্রচ্ছদ - February 25, 2020

এনু-রুপনের বাসায় টাকার গোডাউন

ক‌্যাসিনোকাণ্ডে গ্রেপ্তার গেণ্ডারিয়া আওয়ামী লীগের সাবেক নেতা এনামুল হক এনু ও তার ভাই রুপন ভূঁইয়ার নারিন্দার বাসায় অভিযান চালাচ্ছে র‌্যাব।

ওই বাসায় ১০ থেকে ১২টি টাকার সিন্দুক রয়েছে। এসব সিন্দুকে টাকা আর স্বর্ণালংকার রয়েছে। বাসার ছোট একটি রুমকে টাকার  গোডাউন হিসেবে গড়ে তোলেন তারা।

সোমবার রাতে ওই বাসায় অভিযান শুরু করে র‌্যাব। মঙ্গলবার দুপুরে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত   অভিযান চলছিল।

র‌্যাব-৩ এর অধিনায়ক লেফট‌্যানেন্ট কর্নেল রফিকুল হাসান বলেন, ‘এর সঙ্গে আরো কেউ জড়িত কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তাদের এই বাড়ি ছাড়াও আরো যে ১৫টি বাড়ি আছে সেগুলোর ব্যাপারেও খবর নেয়া হচ্ছে।’

তিনি জানান, এনু-রুপনের নারিন্দার বাসায় একটি ছোট্ট রুমে অনেকগুলো সিন্দুক বসানো হয়েছে। সেখানে কোটি কোটি টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার রাখা হয়েছে।

এসব সিন্দুক থেকে এখন পর্যন্ত ২০ কোটি টাকা,

বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা ও স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

র‌্যাব জানায়, সিন্দুক, বস্তা ও কয়েকটি ব্যাগভর্তি এসব টাকার মালিক ক্যাসিনো মামলার আসামি এনু-রুপন। র‌্যাবের হাতে এনামুল-রুপন আটক হওয়ার পর বাড়িটি ব্যবহার হতো তাদের অবৈধ টাকার গোডাউন হিসেবে। শুধু টাকা নয়, আছে বৈদেশিক মুদ্রা। এছাড়া, এফডিআর, বিভিন্ন ব্যাংকে তাদের গচ্ছিত টাকার‌ চেক জব্দ করা হয়েছে।

র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সরোয়ার আলম জানান, এখনো টাকা গোনার কাজ চলছে। ওই বাসা থেকে ৫ কোটি টাকার মতো এফডিআর পেয়েছি, যা দুই ভাইয়ের নামে করা আছে। ঢাকা ওয়ান্ডারার্স ক্লাবে ক্যাসিনোর যেসব চিজ রয়েছে এখানেও তা আছে। ধারণা করা হচ্ছে, ওই ক্লাব থেকে অবৈধভাবে অর্জিত টাকা এ বাসায় রাখা হয়েছে।

এ ঘটনায় স্থানীয় রাজনৈতিক কর্মীরা জড়িত কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

র‌্যাব জানায়, গত বছরের ১৮ সেপ্টেম্বর থেকে ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান পরিচালনা করে আসছে। ২৪ সেপ্টেম্বর ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানে গেণ্ডারিয়ার মুরগিটোলা এলাকা থেকে নগদ পাঁচ কোটি টাকা ও আট কেজি স্বর্ণালঙ্কারসহ আটক হন দুই ভাই এনু ও রুপন।


আরও পড়ুন