হাইকোর্টে খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য প্রতিবেদন

হাইকোর্টর নির্দেশ অনুযায়ী বিএনপির কারাবন্দি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য প্রতিবেদন সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল কার্যালয়ে জমা দিয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) কর্তৃপক্ষ।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এই প্রতিবেদন জমা দেওয়া হয় বলে জানান নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রেজিস্ট্রার জেনারেল কার্যালয়ের এক কর্মকর্তা।

তিনি বলেন, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিএসএমএমইউ’র আইনজীবী তানিয়া আকতার বিএনপি চেয়ারপারসনের স্বাস্থ্য প্রতিবেদন সুপ্রিম কোর্ট রেজিস্ট্রার জেনারেলের কাছে হস্তান্তর করেন।

এর আগে গত রবিবার জিয়া চ্যারিটেবল মামলায় জামিন আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি কে এম জহিরুল হকের যুগ্ম-বেঞ্চ বুধবার বিকেল ৫টার মধ্যে বিএসএমএমইউ উপাচার্যকে কোনো রকম ব্যর্থতা ছাড়াই এই প্রতিবেদন দাখিল করার নির্দেশ দিয়েছিল।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন চেয়ে আগের দিন এ জামিন আবেদন করেন তার আইনজীবীরা।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা দুটি মামলায় দণ্ডিত বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার জামিনের জন্য আবেদন করা হয়। স্বাস্থ্যগত কারণ এবং উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে চেয়ে এ আবেদন করা হয়েছে।

আইনজীবীরা জানান, এ মামলায় জামিন পেলে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায়ও তাকে জামিন পেতে হবে।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় বিচারিক আদালত তাকে সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছিল। এ সাজার বিরুদ্ধে করা আপিল হাইকোর্টে শুনানির পর্যায়ে রয়েছে।

গত বছর ১২ ডিসেম্বর এ মামলায় সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে জামিনের আবেদন খারিজ হলে দুই মাসের কিছু বেশি সময় পর আবারও জামিনের আবেদন করলেন তিনি।

বিএনপি এবং দলটির আইনজীবীদের অভিযোগ, সরকারের ইশারায় জামিনযোগ্য মামলায় তাকে জামিন দিচ্ছে না আদালত।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় ১০ বছর ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় সাত বছরের কারাদণ্ডপ্রাপ্ত খালেদা জিয়া কারা কর্তৃপক্ষের অধীনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসাধীন।


আরও পড়ুন