দেশের খবর - March 7, 2020

কিশোরগঞ্জে নদী খননের নামে বালু বিক্রি, দেখার কেউ নেই

নীলফামারী জেলার কিশোরগঞ্জ মেডিকেল ব্রিজ সংলগ্ন ধাইজান নদী থেকে প্রায় এক সপ্তাহ ধরে বালু উত্তোলন করে বাড়ী তৈরির ঠিকা নিয়েছেন ঠিকাদার প্রতিষ্টানের কর্মরত লোকজন, দেখার নেই কেউ।

স্যালো মেশিন দিয়ে নদী খননের নামে বালু উত্তোলন করে প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে অবৈধভাবে বিক্রিও করছে এইসব ব্যক্তিরা। এতে সরকারের রাজস্ব খাত শূন্যের কোঠায় থাকছে দেখার কেউ নেই। শুধু কিশোরগঞ্জেই নয়, জেলার বিভিন্ন স্থানে নদী খনন কাজের বালু বিক্রি করে রাতারাতি লাখোপতিও হচ্ছে অনেকে।

গতকাল দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বালু উত্তোলনের স্যালো মেশিন মালিক শরীফের সহযোগিতায় বালু বিক্রি করছে ব্যবসায়ী কালিদাস রায়। কালিদাসের এই বালু উত্তোলনের ফলে কিশোরগঞ্জ/টেংগনমারী মেইন রাস্তার ব্রিজটি হুমকির মুখে।

এ ব্যাপারে কালিদাসের সাথে মোবাইল ফোনে কথা হলে জানায়, আমি বালু উত্তোলন করবো, কোনো করার থাকলে করেন। আর এই কালীদাস কিশোরগঞ্জের এক নামধারী সাংবাদিককে ম্যানেজ করে প্রায় লক্ষাধিক টাকার ঠিকা নিয়ে বাড়ী তৈরির জন্য মাটি ভরাঠ করছে।

এলাকাবাসি জানায়, এরা প্রশাসনসহ সবাইকে ম্যানেজ করে নদী বালু উত্তোলন করছে।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ আরিফুজ্জামান মোবাইল ফোনে জানান, আমি নতুন তাই কিছু বলতে পারবো না, আমার “বস” ইউএনও স্যারকে বলেন তিনি বললেই ব্যবস্থা নিবো।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবুল কালাম আজাদ মোবাইল ফোনে বলেন, এসব বিষয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কতৃপক্ষই ব্যবস্থা নেবে, তবে যদি কেউ বালু গাড়িতে নিয়ে যায় বা বিক্রি করে তাহলে তাদের আটক রেখে খবর দেন ব্যবস্থা নিবো।


আরও পড়ুন