চীন করোনা নিয়ে তথ্য গোপন না করলে ‘বেঁচে’ যেত বিশ্ব : ট্রাম্প

চীন আগ থেকে করোনাভাইরাস সম্পর্কে সতর্ক করলে আজ বিশ্ববাসীকে এই পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হতো না, এমনটা বলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। খবর হিন্দুস্তান টাইমস।

হোয়াইট হাউসে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে ট্রাম্প দাবি করেন, চীন করোনাভাইরাস নিয়ে তথ্য শেয়ার করতে ‘খুব গোপনীয়তা’ কৌশল নিয়েছিল। যেটি খুবই দুর্ভাগ্যজনক। এতে বিশ্বজুড়ে ১৩ হাজারেরও বেশি মানুষ মারা গেল। বেইজিং একটি অগ্রিম সতর্কতা দিলে যুক্তরাষ্ট্রসহ পুরো বিশ্ব আরও ভালোভাবে প্রস্তুতি নিতে পারত।

করোনাভাইরাসের মতো মহামারি নিয়ে জানুয়ারি এবং ফেব্রুয়ারিতে মার্কিন গোয়েন্দাদের সতর্কতার বিষয়টি উড়িয়ে দেন ট্রাম্প। তার দাবি, প্রকাশ্যে ছড়িয়ে যাওয়ার আগে যুক্তরাষ্ট্র কিছুই জানত না।

তিনি বলেন, ‘আপনাকে বুঝতে হবে, চীনের এখানে কোনো উপকার হয়নি। সেখানে হাজার হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। নরক হয়ে গেছে চীন। প্রেসিডেন্ট শি চিনপিংয়ের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। তারা আমাকে আগে বিষয়টি সম্পর্কে জানাতে পারত। যেহেতু সমস্যাটি নিয়ে তারা আগেই জেনেছে।’

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘দেশটির (চীন) প্রতি আমার অগাধ শ্রদ্ধা আছে। আমাদের তাদের নেতাকে অনেক শ্রদ্ধা করি, পছন্দ করি। তিনি আমার একজন বন্ধু। কিন্তু তাদের এ রকম একটি সমস্যা আছে, সেটি তারা আমাদের আগেভাগে জানাতে পারত।’

প্রসঙ্গত, ডিসেম্বরের শেষে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে করোনাভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ে। শুরুতে উহান কর্তৃপক্ষ বিষয়টি গোপন রাখে, এমনকি যে চিকিৎসক ভাইরাসটি সম্পর্কে প্রথম প্রকাশ্যে মুখ খোলেন তাকে গুম করার অভিযোগ উঠে।

দেশটিতে তিন হাজারের অধিক মানুষ মারা গেছে, আক্রান্ত হয়েছে ৮০ হাজারের বেশি। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি অঙ্গরাজ্যের সবকয়টিতেই করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। আক্রান্ত হয়েছে ৩৫ হাজার ৭৫ জন, নিহত ৪৫৮ জন।

বিশ্বজুড়ে ইতিমধ্যে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৫ হাজারে দাঁড়িয়েছে। আক্রান্ত সাড়ে তিন লাখ। তবে সুস্থ হয়ে গেছে এক লাখ মানুষ।


আরও পড়ুন