দেশের খবর - March 31, 2020

টয়লেটের পানি ফেলা নিয়ে সংঘর্ষে সরাইলে অর্ধশতাধিক আহত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে ইউপি সদস্যকে লাঞ্ছিত করার জের ধরে দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে উভয়পক্ষের অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) দুপুরে উপজেলার পাকশিমুল ইউনিয়নের ভুঁইশ্বর গ্রামে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে সরাইল থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে আনতে ব্যর্থ হলে জেলা থেকে এক প্লাটুন রিজার্ভ পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ব্যাপক লাঠিপেটা, ২৬ রাউন্ড রাবার বুলেট ও ১০ রাউন্ড টিয়ারশেল ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, উপজেলার পাকশিমুল ইউনিয়নের পাতার হাটি গ্রামের শাহাব উদ্দিন তার সরাইল-অরুয়াইল সড়কের পাশে ভুঁইশ্বর বাজার সংলগ্ন ভবনের বাথরুমের ময়লা পানি ফসলি মাঠে ছেড়ে দেন। এ কারণে ময়লা পানির দুর্গন্ধে রাস্তা দিয়ে লোকজন চলাফেরা করতে সমস্যা হচ্ছে।

সকালে উপজেলার পাকশিমুল ইউনিয়ন পরিষদের ৬ নং ওয়ার্ডের সদস্য ও উপজেলার ভুইশ্বর গ্রামের উত্তর পাড়ার বাসিন্দা মলাই মিয়া শাহাব উদ্দিনের বাড়িতে গিয়ে বিষয়টি জানতে চাইলে শাহাব উদ্দিনের ছেলে আসাদ উল্লাহ ইউপি সদস্য মলাইকে গালাগালি করে।


বিষয়টি জানাজানি হলে উত্তরপাড়া ও পাতার হাটির লোকদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে সকাল ১০টায় দুইপাড়ার লোকজন দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। সংঘর্ষে উভয়পক্ষে সহস্রাধিক লোক অংশ গ্রহণ করেন।
সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত থেমে থেমে সংঘর্ষে উভয়পক্ষের অর্ধশতাধিক লোক আহত হন।

খবর পেয়ে সহকারি পুলিশ সুপার (সরাইল সার্কেল) মোঃ মাসুদ রানার নেতৃত্বে সরাইল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে আনতে ব্যর্থ হলে জেলা থেকে এক প্লাটুন রিজার্ভ পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ২৬ রাউন্ড রাবার বুলেট ও ১০ রাউন্ড টিয়ারশেল ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

আহতদেরকে সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতাল ও জেলার বিভিন্ন প্রাইভেট ক্লিনিকে ভর্তি ও চিকিৎসা দেয়া হয়।


এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য মলাই মিয়া বলেন, গ্রামের কৃষকদের ফসলি মাঠে যাওয়ার রাস্তায় শাহাবউদ্দিন তার বাড়ির টয়লেটের ময়লা ছেড়ে দিয়েছে। জনপ্রতিনিধি হিসেবে জিজ্ঞেস করতে গেলে শাহাব উদ্দিনের ছেলে আসাদ আমাকে অকথ্য ভাষায় গালমন্দও করে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়।

এ ব্যাপারে শাহাব উদ্দিনের ছেলে আসাদ উল্লাহ বলেন, আমি মলাই মিয়াকে গালমন্দ করিনি। আমি শুধু বলেছি ময়লা নয়, পানি যাচ্ছে। এটা রাস্তা নয়, সরকারি খাল।

এ ব্যাপারে সরাইল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ নূরুল হক বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
তিনি আরো জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ২৬ রাউন্ড রাবার বুলেট ও ১০ রাউন্ড টিয়ারশেল নিক্ষেপ করা হয়। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।


আরও পড়ুন