দেশের খবর - April 3, 2020

সশস্ত্র বাহিনীর টহলেও ঘরে রাখা যাচ্ছে না জনগণকে!

করোনা সংক্রমণ রোধে সশস্ত্র বাহিনীর টহলেও ঘরে রাখা যাচ্ছে না জনগণকে। কোথাও কোথাও জনসমাগম ঘটিয়ে দেয়া হচ্ছে ত্রাণ। আবার বিনা কারণে রাস্তায় বের হচ্ছেন অনেকে। তবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিতে এবার কঠোর অবস্থানে প্রশাসন। নিষেধাজ্ঞা না মানলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানাও করা হচ্ছে। 

কিশোরগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় বেড়েছে জনসমাগম। বিনা কারণে বাইরে বের হওয়া ও দোকানপাট খোলা রাখায় বেশ কয়েকজনকে জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

করোনা প্রতিরোধে জনসমাগম এড়াতে নিম্নআয়ের মানুষের বাসায় বাসায় ত্রাণসামগ্রী পৌঁছে দেয়ার নির্দেশনা থাকলেও, শুক্রবার চট্টগ্রামের খুলশী এলাকায় জটলা করে ত্রাণ নিতে জড়ো হন অনেকেই। খবর পেয়ে জেলা প্রশাসন ও সেনাবাহিনী সেখানে গিয়ে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম বন্ধ করে দেন। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে নগরীতে টহল অব্যাহত রেখেছেন সেনা সদস্যরা।

যশোরে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে জেলার ৮ উপজেলাতেই, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে নিয়মিত টহল দিচ্ছেন পুলিশ ও সেনাসদস্যরা। মানুষকে ঘরে থাকতে মাইকিং করে প্রচারণাও করা হচ্ছে।

রাঙ্গামাটির অলি-গলিতে নিয়মিত টহল দিচ্ছে পুলিশ ও সেনাবাহিনী। অকারণে যারা বাজারে আসে, তাদের বাসায় পাঠিয়ে দেন তারা। এছাড়া, নাটোর, জয়পুরহাট ও মোংলাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী, সামাজিক দূরত্ব ও হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিতে টহল অব্যাহত রেখেছে সশস্ত্রবাহিনী ও স্থানীয় প্রশাসন।


আরও পড়ুন