লকডাউন তুলে নিতেই উহানে বিয়ের হিড়িক

টানা দুই মাস পর করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল চীনের উহান থেকে লকডাউন প্রত্যাহার করা হয়েছে। এর পরই শহরটিতে বিয়ের হিড়িক পড়েছে।  

গত ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকেই কভিড-১৯ করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ায়  জানুয়ারিতে শহরটি লকডাউন করা হয়।

৭৬ দিন লকডাউনের থাকার পর বুধবার তা তুলে নেওয়া হয়েছে। সে দিন বিয়ে করেছেন জু লিন নামের উহানের এক বাসিন্দা। রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যম গ্লোবাল টাইমসকে তিনি বলেন, আজকের দিনটি বিশেষ একটি দিন। আমার জন্য এবং উহান শহরের জন্য এক নতুন শুরু। 

আলিপে নামের একটি টেক প্ল্যাটফর্ম ম্যারেজ অ্যাপ্লিকেশন সিস্টেম নিয়ে কাজ করে। একদিনেই তাদের ট্রাফিক বেড়েছে ৩০০ গুণ। এ কারণে সাইটটি লগজ্যামে পড়ে। এ খবরটি আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয় চীনের মাইক্রোব্লগিং সাইট উইবোতে।

এ দিকে লকডাউন উঠে যাওয়ায় হাজার-হাজার মানুষ উহান থেকে বের হতে শুরু করেছেন। স্থানীয়রা তাদের এই নতুন শুরুকে ‘দ্বিতীয় জীবন’ বলছেন।

উহান প্রশাসনের পক্ষ থেকে বুধবার বলা হয়েছে, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ছাড়পত্র নিয়ে যে কেউ এখন অন্য শহরে যেতে পারবেন। তবে সঙ্গে শারীরিক সুস্থতার কাগজপত্র এবং একটি কিউআর কোড রাখতে হবে।

সাউথ চীনা মর্নিং পোস্ট জানিয়েছে, কয়েক দিন থেকে শহরটির বিভিন্ন রাস্তায় মানুষের চলাচল বেড়েছে। বেড়েছে গাড়ির সংখ্যাও।

গত ডিসেম্বরে এই শহরের একটি মাংসের বাজার থেকে নভেল করোনাভাইরাস মানুষের শরীরে সংক্রমিত হয়। সেখান থেকে ধীরে ধীরে গোটা বিশ্বে ছড়িয়েছে।

চীনে এখন পর্যন্ত ঠিক কত মানুষ মারা গেছে সেটি নিয়ে বিতর্ক আছে। দেশটির দাবি, বুধবার পর্যন্ত ৩ হাজার ৩৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে হুবেইতেই মারা গেছে ৩ হাজার ২১৩ জন।


আরও পড়ুন