ডোমার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ৩ ডাক্তারসহ ২৫ জন কোয়ারেন্টাইনে

নীলফামারীর ডোমার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জ্বর ও ডায়রিয়ার উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হয় পার্শ্ববর্তী জলঢাকা উপজেলার ধর্মপাল ইউনিয়নের মাঝাপাড়া গ্রামের এক কলেজ ছাত্র। নমুনা পরিক্ষার পর সোমবার করোনা ভাইরাস সনাক্ত হয়। রাতেই আক্রান্ত ছাত্রের বাড়ীসহ পার্শ্ববর্তী ৭টি বাড়ী লকডাউন ও ডোমার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ৩ ডাক্তার, নার্স, কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ ২৫ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। 

উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়,গত এক সপ্তাহ আগে (৮ এপ্রিল) পার্শবর্তী জলঢাকা উপজেলার ধর্মপাল ইউনিয়নের মাঝাপাড়া গ্রামের এক কলেজ ছাত্র জ্বর ও ডায়রিয়ার উপসর্গ নিয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় (১১ এপ্রিল) তার নমুনা সংগ্রহ করে রংপুর মেডিকেলে পাঠায় স্বাস্থ্য বিভাগ। এরপর সুস্থ্যবোধ করায় ওই দিনেই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হলে সে নিজ বাড়ীতে অবস্থান করেছিল।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও প: প: কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ ইব্রাহীম জানান, ৩ ডাক্তারসহ  ২৫ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অন্যান্য ডাক্তারদের সর্বক্ষনিক দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

সিভিল সার্জন ডা. রনজিত কুমার বর্মন জানান, আক্রান্ত যুবককে নীলফামারী আধুনিক সদর  হাসপাতালের আইসোলেশনে নেয়া হয়েছে।


আরও পড়ুন