বিপিএলে ‘ফিক্সিং’, সবধরনের ক্রিকেটে নিষিদ্ধ শফিকুল্লাহ

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) ও আফগানিস্তান প্রিমিয়ার লিগে (এপিএল) ফিক্সিং চেষ্টার অভিযোগে সবধরনের ক্রিকেট থেকে ছয় বছর নিষিদ্ধ হয়েছেন আফগান উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান শফিকুল্লাহ শফিক। ২০১৯-২০ মৌসুমে বঙ্গবন্ধু বিপিএলে সিলেট থান্ডারের হয়ে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের চেষ্টা করেছিলেন তিনি।

আজ রোববার এক বিবৃতি দিয়ে শফিকুল্লাহ শফিককে নিষিদ্ধের বিষয়টি নিশ্চিত করে আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। শুধু বিপিএল নয় ২০১৮ সালের আফগানিস্তান প্রিমিয়ার লিগেও একই কাণ্ড ঘটানোর চেষ্টা করেছিলেন শফিক। তার বিরুদ্ধে আনা সবকটি অভিযোগ শিকার করেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান।

এন্টি করাপশন ট্রাইব্যুনাল তার বিরুদ্ধে চারটি নিয়ম লঙ্ঘনের অভিযোগ এনেছে। শফিকুল্লাহর বিরুদ্ধে অভিযোগগুলোর মধ্যে রয়েছে, ফিক্সিং কিংবা যেকোনোভাবে তাতে প্রভাব রাখা, ঘরোয়া ম্যাচে ইচ্ছাকৃতভাবে খারাপ পারফর্ম করা, ম্যাচে কোনো কাজ করার জন্য ঘুষ গ্রহণ কিংবা গ্রহণে সম্মত হওয়া, তদন্ত কাজ বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টাসহ আরও কয়েকটি অভিযোগ।

গেল বিপিএলে সিলেটের হয়ে তিনটি ম্যাচে মাঠে নেমেছিলেন শফিকুল্লাহ শফিক। তিন ম্যাচে তার ব্যাট থেকে আসে ১৮ রান। সর্বোচ্চ করেন ১০ রান। আর দুই ম্যাচে তার ব্যাট থেকে আসে ৬ ও ২ রান। ৩০ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার দেশের হয়ে ২৪টি ওয়ানডে আর ৪৬টি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন। জাতীয় দলের নিয়মিতই সদস্যই ছিলেন তিনি।

আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সিনিয়র এন্টি-করাপশন ম্যানেজার সাইদ আনোয়ার শাহ কোরায়শী বলেন, ‘এটা সেই সব খেলোয়াড়দের জন্য সতর্কবার্তা যারা মনে করে, তাদের অনৈতিক কাজ এসিবির দুর্নীতি দমন ইউনিট প্রকাশ করবে না। যা ভাবা হয় তার চেয়ে অনেক বেশি আমাদের নজরদারি।’


আরও পড়ুন