ভারত সীমান্তের কাছে ব্যাপক নির্মাণ কাজ চালাচ্ছে চীন

ভারত সীমান্ত থেকে মাত্র ২০০ কিলোমিটার দূরে ভূমি থেকে অনেক উপরে অবস্থিত চীনের সামরিক বিমান ঘাঁটিতে ব্যাপক নির্মাণ কাজ শুরু করেছে বেইজিং। স্যাটেলাইট থেকে পাওয়া ছবিতে বিষয়টি দেখা গেছে বলে জানিয়েছে এনডিটিভি অনলাইন।

উন্মুক্ত গোয়েন্দা তথ্য সরবরাহকারী  একটি সংস্থা তিব্বতের এনগারি গুনসা বিমানবন্দরের কয়েকটি ছবি প্রকাশ করেছে। এর প্রথমটি ৬ এপ্রিল এবং দ্বিতীয়টি ২১ মে গ্রহণ করা। প্রধান টারমাকের তৃতীয় একটি ছবিতে দেখা গেছে, সেখানে চারটি যুদ্ধবিমান রাখা রয়েছে।

এতে দেখা গেছে, ঘাঁটিটিতে হেলিকপ্টার বা যুদ্ধবিমান রাখার জন্য দ্বিতীয় একটি টারমাক নির্মাণ করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে এগুলো চাইনিজ পিপল’স লিবারেশন আর্মি বিমান বাহিনীর জে-১১ অথবা জে ১৬ যুদ্ধবিমান। এই জে-১১ অথবা জে ১৬ যুদ্ধবিমান চীনের নিজস্ব তৈরি যেটি রাশিয়ার সুখোই-২৭ এর সমকক্ষ। ভারত সীমান্তের কাছে এভাবে যুদ্ধবিমানের মোতায়েনকে উদ্বেগের কারণ হিসেবেই দেখা হচ্ছে।

এদিকে লাদাখে অতিরিক্ত দুই থেকে আড়াই হাজার সেনা মোতায়েন করেছে চীন। গালওয়ান এলাকায় বেইজিং বাঙ্কার তৈরিরও চেষ্টা চালাচ্ছে বলেও জানা গেছে। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর বিতর্কিত এলাকাগুলিতে সেনা সমাবেশ বাড়িয়েছে ভারতও। ফলে, ২০১৭ সালের ডোকলাম পরিস্থিতির পর প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় ভারত ও চীনের মধ্যে ব্যাপক সামরিক উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে।

সমর বিশেষজ্ঞদের  বরাত দিয়ে আনন্দবাজার অনলাইন জানিয়েছে,পরিস্থিতির যেভাবে অবনতি ঘটছে, তাতে দু’পক্ষ দ্রুত সমঝোতায় পৌঁছতে না পারলে রণক্ষেত্র হয়ে উঠতে পারে প্যাংগং সো, গালওয়ান উপত্যকা, ভারতীয় চৌকি ‘কেএম১২০’-সহ ভারত-চীনের মধ্যে ৩ হাজার ৪৪৮ কিলোমিটার লম্বা প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা।


আরও পড়ুন