দেশের খবর - July 19, 2020

পাবনায় জামায়াত কর্মীদের গোপন বৈঠক, গ্রেপ্তার ৪

জামায়াতের ঘাঁটি খ্যাত পাবনার সাঁথিয়ায় জামায়াত কর্মীদের গোপন বৈঠক চলাকালে ৪ জন কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৪টি জিহাদী বই উদ্ধার করা হয়।

শনিবার(১৮ জুলাই) দুপুরে সাঁথিয়া পৌরসভার মধ্যে অবস্থিত সাঁথিয়া প্রি ক্যাডেট স্কুলে এ অভিযান পরিচালিত হয়। জামায়াত নিয়ন্ত্রিত এ প্রতিষ্ঠানটি শনিবার বিকেলে পুলিশ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে সিলগালা করে দেয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- পাবনার চাটমোহর উপজেলার ধুলাউড়ি গ্রামের সুবল প্রাং এর ছেলে ও বোয়াইলমারি কামিল মাদ্রাসার শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ(৪৫), সাঁথিয়া উপজেলার কোনাবাড়িয়া গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে আ: গফুর (৪৬), শিবরামপুর গ্রামের আবু ইউসুফের ছেলে জাকারিয়া রাজা(৩০) ও আলোকদিয়ার গ্রামের আরজানের ছেলে জয়নাল আবেদীন(৫৫)। এরা সবাই জামায়াতের সক্রিয় কর্মী বলে পুলিশ নিশ্চিত করেন। তারা সরকার উৎখাতের পরিকল্পনা করছিল বলে পুলিশ জানিয়েছে।

সাঁথিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি)আসাদুজ্জামান জানান, শনিবার (১৮ জুলাই) দুপুরে সাঁথিয়া পৌর জামায়াতের আমীর অধ্যাপক আ: সাত্তারের মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান সাঁথিয়া প্রি ক্যাডেট স্কুলে জামায়াত কর্মীদের গোপন বৈঠক চলছিল। আ: সাত্তার এ প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ। স্কুলে চলা এ গোপন বৈঠকে পাবনার বিভিন্ন অঞ্চলের ৫০/৬০ জন জামায়াত কর্মী উপস্থিত ছিলেন। এ সময় তারা অনলাইনে জামায়াতের কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে পরামর্শ করছিলেন। এ বৈঠকে বর্তমান সরকারকে বেকায়দায় ফেলাসহ উৎখাত করার জন্য তারা বিভিন্ন পরিকল্পনা করছিলেন।

ওসি আরো জানান, গোপন সূত্রে সাঁথিয়া থানা পুলিশ এ খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক অভিযান চালায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে জামায়াত কর্মীরা স্কুলের পিছন দিক দিয়ে দৌড়ে পালান। বেশিরভাগ পালিয়ে যেতে পারলেও ৪জন পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হন।

ওসি জানান, বিদ্যালয়ের সামনের গেট দিয়ে পুলিশ ঢোকে কিন্তু পিছন গেট দিয়ে জামায়াত কর্মীদের বেশিরভাগ পালিয়ে যান। এসময় তাদের ফেলে যাওয়া ৪টি জিহাদী বই উদ্ধার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে স্কুলটির মালিক ও অধ্যক্ষ আ: সাত্তারের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

সাঁথিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি)আসাদুজ্জামান জানান, উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে পুলিশ শনিবার বিকেলে স্কুলটি সিলগালা করে দিয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত ৪ জনের বিরুদ্ধে শনিবার সন্ধ্যায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। রোববার (১৯ জুলাই) সকালে তাদের পাবনা আদালতে পাঠান হবে। সাঁথিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল মাহমুদ দেলোয়ার জানান, দেশ এখন একটি ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। সবাই মানবতার জন্য কাজ করছে। সে সময়ে জামায়াতের কর্মীরা নাশকতামূলক কাজ করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এটা অত্যন্ত দু:খজনক। তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া দরকার বলে তিনি জানান।

তিনি আরো জানান, জামায়াতের সাবেক আমীর ও মানবতাবিরোধী যুদ্ধাপরাধ মামলায় ফাঁসির দন্ডাদেশ কার্যকর হওয়া মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর গ্রামের বাড়ির পাশে স্কুলটি অবস্থিত। পুলিশ প্রশাসন যথার্থই এটি সিলগালা করেছে বলেও জানান তিনি।


আরও পড়ুন