মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে : রিজভী

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, আজ কথা বলার অধিকার নেই।  মানুষের গণতান্ত্রিক যে অধিকারগুলো রয়েছে সব কেড়ে নেওয়া হয়েছে।

বুধবার (২৯ জুলাই) সকালে মুন্সীগঞ্জে এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

জাতীয় মৎস সপ্তাহ-২০২০ উপলক্ষে উন্মুক্ত জলাশয়ে মৎস অবমুক্তকরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে জাতীয়তাবাদী মৎস্যজীবী দল মুন্সীগঞ্জ উপজেলা শাখা। এ সময় জেলার শ্রীনগর আড়িয়াল খাঁ বিলে মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়।

রিজভী বলেন, ‘বিএনপি গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার আন্দোলন করছে।  আজ যদি আপনারা মত প্রকাশের জন্য ফেসবুকে কিছু লিখেন, দিনে রাতে যেকোন সময় আপনি গ্রেপ্তার হতে পারেন। ’

আজ ভোটের অধিকার নেই উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, ‘এটি ফিরিয়ে আনার জন্য আমরা লড়াই করছি।  দেশের কোটি মানুষের যিনি আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতীক,  দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে তারা অন্যায়ভাবে মিথ্যা মামলায় দুই বছরের অধিককাল কারাগারে বন্দি করে রেখেছিলো। ’

তিনি বলেন, ‘বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের রাজনীতি ছিল বহুদলীয় গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা করা। গণতন্ত্র হত্যা করছিলো আজকে যারা ক্ষমতায় আছে তাদেরই পূর্বপুরুষেরা তারা সেই সময়ে এই কাজগুলো করেছিলেন। সংবাদপত্রগুলো বন্ধ করে দিয়েছিল তারা। কয়েকটি পত্রিকা ছাড়া কোন পত্রিকা চলতে দেয়নি।  কথা বলা যাবে না।  একদল এক নেতা ছাড়া কথা বলা যাবে না। জিয়াউর রহমান ক্ষমতায় এসে এগুলো চালু করে দিয়েছিলেন।  বহুদলীয় গণতন্ত্র সংবাদপত্রের স্বাধীনতা, কথা বলার স্বাধীনতা, লেখার স্বাধীনতা, চিন্তার স্বাধীনতা এটি দিয়েছিলেন জিয়াউর রহমান।’

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, মৎসজীবী দলের সভাপতি রফিকুল ইসলাম মাহতাব, সদস্য সচিব আব্দুর রহিম, জেলার সদস্য সচিব আলমগীর হোসেন সামি প্রমুখ।


আরও পড়ুন