পাকিস্তানে ক্রিকেট ম্যাচে সন্ত্রাসী হামলা

পাকিস্তানে স্থানীয় পর্যায়ের একটি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনালে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে। তবে এতে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম দ্য নিউজ জানিয়েছে, আফগানিস্তান ঘেঁষা প্রদেশ খয়বার পাখতুনখোয়ার ওরাকজায় জেলায় ‘আমান ক্রিকেট টুর্নামেন্ট’ এর ফাইনাল চলাকালে বৃহস্পতিবার এই হামলার ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, টুর্নামেন্টটির ফাইনাল দেখতে স্থানীয় স্টেডিয়ামে অনেক দর্শক সমবেত হয়েছিলেন। এর মধ্যে অনেক রাজনৈতিক কর্মী ও সাংবাদিক উপস্থিত ছিলেন।

ম্যাচটি শুরু হতেই পার্শ্ববর্তী পাহাড় থেকে এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়তে থাকে সন্ত্রাসীরা। দ্রুত স্টেডিয়াম থেকে পালিয়ে জীবন বাঁচান খেলোয়াড়, দর্শকেরা।

ফাইনালে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জমিয়াত উলেমা-ই-ইসলামের নেতা হাজি কাসিম গুল। সন্ত্রাসী হামলার কারণে ম্যাচটি বাতিল করতে হয়েছে।

একজন দর্শক জানান, এত বেশি গুলি ছোড়া হচ্ছিল যে, খেলা বাতিল করা ছাড়া আয়োজকদের আর কোনো বিকল্প ছিল না। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

এ ব্যাপারে ওরাকজাই জেলার পুলিশ অফিসার নিসার আহমেদ খান জানান, এই এলাকায় সন্ত্রাসীদের উপস্থিতির কোনো তথ্য তাদের হাতে নেই। ঘটনাটির পর সন্ত্রাসী ও অন্যান্য অপরাধীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালানোর প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।

এর আগে ২০০৯ সালে পাকিস্তানের লাহোরে সফররত শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের ওপর সন্ত্রাসী হামলার জেরে দীর্ঘ দিন নিজেদের মাটিতে কোনো আন্তর্জাতিক ক্রিকেট আয়োজন করতে পারেনি পাকিস্তান।

গত কয়েক বছর ধরে পরিস্থিতি অনেকটা স্বাভাবিক হওয়ায় নিজেদের মাটিতে বেশ কয়েকটি সিরিজ আয়োজন করতে পেরেছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড। এরই মধ্যে পাকিস্তান সফর করে এসেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ, শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশ ক্রিকেট দল।


আরও পড়ুন