কিশোরগঞ্জে সিএনজি-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ১

কিশোরগঞ্জে সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে এক সিএনজি যাত্রী নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন আরও দুই যাত্রী।

শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে কিশোরগঞ্জ-ভৈরব আঞ্চলিক সড়কে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার রশিদাবাদ ইউনিয়নের মধ্যপাড়া বেইলী ব্রিজ এলাকায় এই দুর্ঘটনাটি ঘটে।

নিহত মুজিবুর রহমান (২৭) জেলার পাকুন্দিয়া উপজেলার নারান্দী পশ্চিমপাড়ার জলিল মিয়ার ছেলে। তিনি ময়মনসিংহ জেলার ধোবউড়ায় শ্বশুরবাড়িতে বসবাস করতেন।

প্রতক্ষ্যদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঈদে কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ার বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলেন মো. মুজিবুর রহমান। আজ তার শাশুড়ির মৃত্যুর খবর শুনে সকালে স্ত্রী ও শিশুপুত্রকে নিয়ে পাকুন্দিয়া থেকে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে ময়মনসিংহের ধোবউড়ায় শ্বশুরবাড়িতে যাচ্ছিলেন তিনি। কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার রশিদাবাদ মধ্যপাড়া বেইলী বিজ্র এলাকায় পৌঁছলে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি মোটরসাইকেলের সঙ্গে সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে সিএনজি যাত্রী মুজিবুর রহমান ঘটনাস্থলেই মারা যান। এতে সিএনজিচালক এবং নিহত মুজিবুরের স্ত্রী ও পুত্র আহত হয়।

ঘটনার পর মোটরসাইকেল ফেলে পালিয়ে গেছেন মোটরসাইকেলের চালক। আহত সিএনজি চালককে চিকিৎসার জন্য কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে এলাকাবাসী দুর্ঘটনাস্থলে নিহতের লাশ রেখে কিশোরগঞ্জ-ভৈরব আঞ্চলিক সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। গত সপ্তাহেও একই স্থানে দুর্ঘটনায় হতাহতের ঘটনা ঘটেছে দাবি করে ক্ষিপ্ত এলাকাবাসী।

কিশোরগঞ্জ-ভৈরব আঞ্চলিক সড়ক অবরোধের কারণে তখন এ সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এসময় ব্যস্ত এই সড়কে দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়।

এ ঘটনার খবর পেয়ে কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় দেড় ঘন্টা চেষ্টার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। পরে সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি মো. আবুবকর সিদ্দিক পিপিএম ঘটনার সত্যতা নিশ্চত করে জানান, দুর্ঘটনাকবলিত মোটরসাইকেল ও সিএনজিকে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। নিহত মুজিবুরের মরদেহ মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।


আরও পড়ুন