‘শোক দিবসে জন্মদিনের কেক কাটার সংস্কৃতি বন্ধ হওয়ায় স্বস্তিতে জনগণ’

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, জাতীয় শোক দিবসে যারা জন্মদিন পালন করতো, সেটি এবার না করে কেক কাটার সংস্কৃতি থেকে বেরিয়ে আসায় জনগণ স্বস্তি পেয়েছে।

শনিবার জাতীয় শোক দিবসে বনানী কবরস্থানে ১৫ আগস্টের শহীদদের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ইঙ্গিত করে তিনি এ কথা বলেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন ১৫ আগস্ট তার জন্মদিন পালন করে থাকেন। তবে গত কয়েক বছর তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে এদিন আর জন্মদিন উদযাপন করছেন না। এ বছর দিনটি উপলক্ষে বিএনপি তার রোগমুক্তি কামনা করে দোয়া-মাহফিলের আয়োজন করে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পলাতক পাঁচ খুনিকে দেশে ফেরাতে রাজনৈতিক ও কূটনৈতিক তৎপরতা বাড়িয়েছে সরকার।’

তিনি বলেন, পরাজিত শক্তি যখন নিজেরা দমাতে পারেনি, শত চেষ্টাতেও যারা পরাস্ত হয়েছিল স্বাধীন বাংলার প্রাণ প্রাচুর্যের কাছে, তখনই তারা প্রগতির পথ রুদ্ধ করতে ইতিহাসের সেই ঘৃণ্য কালো অধ্যায় রচনা করেন জাতির পিতাকে সপরিবারে হত্যা করে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, মুক্তিকামী বাঙালির সেই পুরোনো ক্ষত জাগ্রত হওয়ার দিন ১৫ আগস্ট। ভারাক্রান্ত এই দিবসের শুরুতেই শ্রদ্ধায় স্মরণ করা হয় অবিসংবাদিত এই নেতাকে।


আরও পড়ুন