কুলিয়ারচর - August 27, 2020

কুলিয়ারচরে অর্থদণ্ডসহ অবৈধ জাল জব্দ

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে এক ব্যবসায়ীকে ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ডসহ অবৈধ জাল জব্দ করে জনসম্মুখে আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংশ করে দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বৃহস্পতিবার (২৭ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে উপজেলা মৎস্য দপ্তরের উদ্যোগে থানা পুলিশের সহযোগিতায় কুলিয়ারচর বাজার লঞ্চঘাটে ও কালী নদী সংলগ্ন গণকখালী খালে অভিযান পরিচালনা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুবাইয়াৎ ফেরদৌসী।

এ সময় কুলিয়ারচর বাজার লঞ্চ ঘাটস্থ মেসার্স আলবিদা পোল্ট্রি এন্ড ফিস্ ফিড দোকানে অভিযান চালিয়ে মৎস্য খাদ্য ও পশু খাদ্য আইন (২০১০) এর আওতায় মেয়াদ উত্তীর্ণ এবং অনুমোদন বিহীন উপকরণ রাখার দায়ে মেসার্স আলবিদা পোল্ট্রি এন্ড ফিস্ ফিড এর সত্ত্বাধিকারী মো. মামুন মিয়াকে নগদ ৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

অপরদিকে দুপুরের দিকে কালী নদী সংলগ্ন গণকখালী খালে অভিযান চালিয়ে মৎস্য সংরক্ষণ আইন ১৯৫০ এর আওতায় খাল হতে ৫টি অবৈধ খড়া জাল উচ্ছেদ করা হয় এবং খালে স্থায়ী ভাবে বাঁধ দেওয়ার কারণে প্রায় ৬০০ মিটার অবৈধ মশারীর জালের বাঁধ অপসারণ করিয়া জাল জব্দ করে জনসম্মূখে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে ধ্বংস করে দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার সময় সাথে ছিলেন, সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার মোহাম্মদ মুশফিকুর রহমান, উপজেলা নক্সাকার উপ-সহকারী প্রকৌশলী (এজিইডি) এম.এ লায়েছ, থানার এএসআই মো. মতিয়ার রহমান ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের পেশকার উপজেল নির্বাহী অফিসের নাজির মো. ইমরান হোসেনসহ পুলিশ ফোর্স।

সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, মৎস্য সম্পদ সংরক্ষণ ও উন্নয়নে উপজেলা মৎস্য দপ্তরের উদ্যোগে এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে।


আরও পড়ুন