করিমগঞ্জ - September 6, 2020

করিমগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় স্কুল শিক্ষিকা নিহত

কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জে সিএনজি চালিত অটোরিকশা ও টমটমের মুখোমুখি সংঘর্ষে মালেকা আক্তার নামে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক শিক্ষিকা নিহত হয়েছেন। শনিবার (৫ সেপ্টেম্বর) রাতে কিশোরগঞ্জ-চামড়া সড়কে করিমগঞ্জ উপজেলার শিমুলতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তার মৃত্যুতে পরিবারে বইছে শোকের ছায়া।

‌তি‌নি ক‌রিমগঞ্জ সদ‌রের নয়াপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল হা‌মি‌দের মে‌য়ে। স্কুল শিক্ষিকা মালেকার মর্মান্তিক মৃত্যুতে স্বজনদের আহাজারি থাম‌ছে না। মৃত্যুর কিছুক্ষণ আগেও মোবাইলে মায়ের সাথে কথা হয়েছিলো পালিত মেয়ে রাফির। তাই তো মায়ের মৃত্যু খবরে যেন তার মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পড়েছে।

পুলিশ জানায়, কিশোরগঞ্জ থেকে একটি সিএনজি চালিত অটোরিকশায় করে করিমগঞ্জ উপজেলার নয়াপাড়া গ্রামে নিজের বাড়িতে ফিরছিলেন স্কুল শিক্ষিকা মালেকা আক্তার (৪৫)। সন্ধ্যার কিছু পর শিমুলতলা বাজারের কাছে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি বেপরোয়া গতির টমটমের সাথে সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে গুরুতর আহত হন মালেকা। আশংকাজনক অবস্থায় তাকে করিমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে রাত ৮টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

খবর পেয়ে হাসপাতালে ভিড় করেন, তার সহকর্মী ও স্বজনরা। তাদের আহাজারিতে ভারি হয়ে উঠে আশপাশের পরিবেশ।

ঘটনার পর সিএনজি ও টমটমটি আটক করেছে পুলিশ। তবে পালিয়ে গেছে দুই চালক। এ ঘটনায় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানালেন, করিমগঞ্জ থানার ওসি মো. মমিনুল ইসলাম।

নিহত মালেকা আক্তার করিমগঞ্জ উপজেলার নয়াপাড়া আ: সালাম মুন্সি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ছিলেন। তিনি স্বামী পরিত্যক্তা। রাফি নামে তার একটি পালিত মেয়ে রয়েছে। তবে, মৃত্যুর পর আবু ফারুক নামে এক ব্যক্তি দাবি করেছেন, কয়েক বছর আগে গোপনে মালেকা আক্তারকে বিয়ে করেছিলেন তিনি।


আরও পড়ুন