অনিশ্চয়তায় টাইগারদের শ্রীলঙ্কা সফর

শ্রীলঙ্কায় গিয়ে কত দিনের কোয়েরেন্টাইনে থাকতে হবে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের? ৭ দিন? ১৪ দিন? এই সময়ে কি মাঠে অনুশীলন করা যাবে?

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড থেকে প্রশ্নগুলোর স্পষ্ট জবাব পাচ্ছে না বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।

আনঅফিসিয়ালি জানা গেছে, তাতে শ্রীলঙ্কা সরকার ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়েরান্টাইন নীতিতে ছাড় দিতে রাজি নয় ক্রিকেটাদের জন্য। এই সময়ে হোটেলের বাইরেও বের হওয়া যাবে না। অনুশীলন সুবিধা ছাড়া দুই সপ্তাহ হোটেলবন্দী হয়ে থাকার প্রস্তাবে আবার রাজি নয় বিসিবি।

তাই জাতীয় দলের শ্রীলঙ্কা সফর সংশয়ে। এখনই বাতিল নয় কিছুতেই, তবে কিছুটা অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে তো বটেই!

করোনাভাইরাসের কারণে গত মার্চ থেকে বাংলাদেশের ক্রিকেট কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়। তবে হত ১৯ জুলাই থেকে সীমিত আকারে পুনরায় ক্রিকেট কার্যক্রম শুরু হয়। বিসিবির আয়োজিত জৈব-সুরক্ষা পরিবেশে ব্যক্তিগতভাবে অনুশীলন শুরু করে ক্রিকেটাররা। কিছুদিন আগে বিসিবি ছোট-ছোট গ্রুপে অনুশীলন শুরু করে, তবে সতর্কতা হিসেবে এখনো পূর্ণাঙ্গ অনুশীলন শুরু হয়নি।

শ্রীলঙ্কা সফরের আগে দেশের মাটিতে ছোট আকারে কন্ডিশনিং ক্যাম্প করবে বাংলাদেশ। তবে টাইগারদের মূল অনুশীলন পর্ব অনুষ্ঠিত হবে শ্রীলঙ্কার মাটিতে । আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর লঙ্কার উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়বে টাইগাররা। ফলে ২৪ অক্টোবর থেকে প্রথম টেস্ট শুরুর আগে হাতে প্রায় এক মাস সময় থাকবে। তবে উদ্বেগের বিষয়, ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকলে, টেস্ট সিরিজের আগে অনুশীলনের জন্য পর্যাপ্ত সময় পাবে না বাংলাদেশ।


আরও পড়ুন