জাতিসংঘে রাতে ভার্চুয়াল ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৫তম অধিবেশনে আজ শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) রাতে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রতি বছরের মতো এবারও তার ভাষণটি হবে বাংলায়। প্রধানমন্ত্রী তাঁর ভাষণে করোনার ভাইরাসের ভ্যাকসিন প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে উন্নত বিশ্বের নেতাদের প্রতি আহ্বান জানানোর পাশাপাশি রোহিঙ্গা সংকটের স্থায়ী সমাধানে তার প্রস্তাব পেশ করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

করোনা মহামারির কারণে কোনো দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধান এবার নিউইয়র্কে যাননি। তবে অনলাইন প্ল্যাটফর্মে সবাই যোগ দিয়েছেন। নিরুত্তাপ জাতিসংঘ। এরই মধ্যে উত্তাপ ছড়িয়েছে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের বক্তব্য। এবারের অধিবেশনে প্রাধান্য পেয়েছে মধ্যপ্রাচ্য ইস্যু ও বৈশ্বিক করোনা পরিস্থিতি। এ নিয়ে বিতর্কে জড়িয়েছেন বিশ্বনেতারা। এ অধিবেশনে ভার্চুয়াল বক্তব্য রাখবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

জাতিসংঘে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা বলেন, ‘সারাবিশ্বের রাষ্ট্রগুলো সরকার প্রধানরা জাতিসংঘে আসেন, এবার পুরোটাই তো ভার্চুয়ালি হচ্ছে। এবং সেটা প্রি রেকর্ডেড। ভিডিও ম্যাসেজ দেওয়া হবে।’

গত পনের বছরের মধ্যে এই প্রথম জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্কে আসছেন না প্রধানমন্ত্রী। তাই শেখ হাসিনার আগমনকে ঘিরে স্থানীয় আওয়ামী লীগের রাজনীতিতেও সেই সরব অবস্থা নেই।

যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদের মিয়া বলেন, এই প্রথম প্রধানমন্ত্রী না আসতে পারায় আমরা যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসীরা সবাই খুব মিস করছি।

অধিবেশনে ভাষণ দেওয়া ছাড়াও আগামী ২৯ ও ৩০ সেপ্টেম্বর এবং পয়লা অক্টোবর জাতিসংঘের আরও তিনটি সভায় বক্তব্য রাখবেন প্রধানমন্ত্রী।


আরও পড়ুন