বোচাগঞ্জে পরকীয়া প্রেমের জেরে যুবক হত্যা

দিনাজপুরের বোচাগঞ্জের পল্লীতে পরকীয়া প্রেমের জেরে এক যুবককে হত্যার অভিযোগ ওঠেছে। জিজ্ঞাবাদের জন্য এক স্কুল শিক্ষিকা (নিহতের কথিত প্রেমিকা) ও তার স্বামীকে আটক করেছে বোচাগঞ্জ থানা পুলিশ।

আটক স্কুল শিক্ষিকা পপি রানী রায় বিরল থানার শিষগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা ও তার স্বামী মন্টু রায় কাঞ্চন উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বলে জানা গেছে।

এলাকাবাসী ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, বোচাগঞ্জ উপজেলার ৪ নং আটগাওঁ ইউনিয়নের সিলেট গ্রামের হিরা লাল মহন্তের ছেলে বিকাশ মহন্ত (২৮) গত তিন মাস আগে বিয়ে করে বাড়িতে বউ নিয়ে আসেন। ঘটনার আগের দিন গত ২৮ সেক্টেম্বর সন্ধ্যা আনুমানিক ৭টার দিকে একই গ্রামের শিক্ষক মন্টু চন্দ্র রায়ের স্ত্রী স্কুল শিক্ষিকা পপি রানী রায় ফোন রিসিভ না করার কারণে বিকাশ মহন্তের বাড়িতে গিয়ে তাকে মারধর করে। এসময় পপি রানী বিকাশকে তার মোবাইল ফোন রিসিভ ও ম্যাসেজের উত্তর না দেওয়ার কারণ জানতে চায়। এরপর সন্ধ্যা থেকেই বিকাশকে আর কোথাও দেখা যায়নি। পরদিন সকালে পুলহাট বাজারে উত্তরে হরিপুর গ্রামের একটি আম বাগান থেকে বিকাশের লাশ দেখতে পায় স্থানীয়রা। পরে তারা তাৎক্ষণিক খবর দিলে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ বিকাশের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়।

এ বিষয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আইয়ুব আলী জানান, এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে স্কুল শিক্ষিকা পপি রানী ও তার স্বামী স্কুল শিক্ষক মন্টু রায়কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। বিকাশের শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাতের চিহ্ন দেখা গেছে। পরকীয়া প্রেমের কারণেই এই হত্যাকাণ্ড ঘটতে পারে বলে তিনি প্রাথমিক ধারণা করছেন। এ ব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। বিকাশের পরিবার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে বিচারের দাবি জানিয়েছেন।


আরও পড়ুন