ছয় মাস পর শুরু হলো ওমরাহ

পূর্বঘোষিত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে রবিবার থেকে পবিত্র ওমরাহ পালন শুরু হয়েছে। করোনা মহামারীর কারণে ছয় মাস ওমরাহ পালন বন্ধ ছিল।

প্রথম ধাপে সৌদি আরবে অবস্থানকারী স্থানীয় ও প্রবাসীরা নির্ধারিত নিয়ম ও শর্ত পালন সাপেক্ষে ওমরাহ পালনের সুযোগ পাচ্ছেন।

আরব নিউজ জানায়, ওমরাহ পালনে আসা প্রথম দলটির জন্য মসজিদুল হারামের দরজা খুলে দেওয়া হয়েছে।

দুই পবিত্র মসজিদের জেয়ারত ও ওমরাহ পালনের জন্য প্রথম ধাপে প্রতিদিন ছয় হাজার মুসল্লি সুযোগ পাবেন। দিনে ১২টি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে ওমরাহ ও জেয়ারতের কাজ সম্পন্ন করতে হবে। প্রতি গ্রুপে ৫০০ ব্যক্তি অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

স্বাস্থ্যবিধিসহ অন্যান্য নিয়ম যথাযথভাবে পালনসহ ওমরাহর সার্বিক তদারকিতে এক হাজার কর্মীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে।

গত মধ্য মার্চে করোনা ছড়িয়ে পড়লে ওমরাহ ও মসজিদে নামাজ বন্ধসহ কড়া পদক্ষেপ নেয় সৌদি কর্তৃপক্ষ। অবশ্য একেবারে সীমিত পরিসরে হজের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করা হয়।

দ্বিতীয় ধাপে ১৮ অক্টোবর দ্বিতীয় ধাপে প্রতিদিন ১৫ হাজার লোক অংশ নিতে পারবেন। ১ নভেম্বর তৃতীয় ধাপে প্রতিদিন ২০ হাজার লোক অংশ নিতে পারবেন। তৃতীয় ধাপে বিশ্বের সব সুনির্দিষ্ট দেশের মুসলিমরা অংশ নেওয়ার সুযোগ পাবেন।

করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর চতুর্থ ধাপে ওমরাহ ও পবিত্র দুই মসজিদ স্বাভাবিক করে দেওয়া হবে।

ওমরাহতে অংশ নেওয়ার জন্য ‘ইতিমারনা’ অ্যাপের সাহায্যে নিবন্ধন করতে হয়। গত ২৭ সেপ্টেম্বর অ্যাপটি চালু হওয়ার পাঁচ দিনের মধ্যে এক লাখ ৮০ হাজার ৪১ জনের নিবন্ধন সম্পন্ন হয়েছে।

প্রথম ধাপে প্রতিটি দল ওমরাহের জন্য তিন ঘণ্টা সময় পাবে। তাওয়াফের সময় ওমরাহ পালনকারীদের নিয়ে চলার জন্য ১৬ জন দলনেতা থাকবেন।

পবিত্র মসজিদুল হারামে থাকা সব টয়লেট প্রতিদিন ছয়বার ধৌত করা হবে ও জীবাণুমুক্ত করা হবে। তাছাড়া কার্পেট ও হুইল চেয়ারসহ অন্যান্য জিনিসপত্র নিয়মিত জীবাণুমুক্ত করা হবে।


আরও পড়ুন