দেশের খবর - October 18, 2020

ভালুকায় উৎসকর ফাঁকি দিয়ে বনভুমি রেজিস্ট্রির অভিযোগ

ময়মনসিংহের ভালুকায় সাবরেজিস্টারের যোগসাজসে উৎসকর ফাঁকি দিয়ে বনবিভাগের দাবীকৃত ৫তলা ভবনের জমি রেজিষ্ট্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত ১৩/১০/২০২০ইং তারিখে উপজেলার হবিরবাড়ী ইউনিয়নের বনবিজ্ঞপ্তিত ১৮৫ নং দাগে মুক্তাজা পারভীনের দখলিয় সারে তিন শতক জমি ৫তলা ভবনের তথ্য গোপন করে সাবরেজিস্টারকে ম্যানেজ করে (দলিল নং ৬৬৫৩) রেজিষ্ট্রি করা হয়েছে। জানাযায় উক্ত ভবন সহ জমিটি বর্তমান বাজার মূল্য প্রায় চার কোটি টাকা। দলিলে মুল্য দেয়া হয়েছে ৫০ লক্ষ টাকা। ৫তলা ওই ভবনটি ৬৫০০ স্কয়ার ফিট, প্রতি স্কয়ার ফিটে সরকারি রাজস্ব ১৫০০টাকা এতে প্রায় ১০ লাখ টাকা সরকারের রাজস্ব ফাঁকি দেয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে দলিল লেখক জয়নাল আবদিন সংবাদ প্রকাশ না করার অনুরুধ করে বলেন দলিল গ্রহীতা সিরাজুল ইসলাম আমার আত্মীয় তাছাড়া কাগজপত্র অনুযায়ীই জমি রেজিস্ট্রি করা হয়েছে।

এব্যাপারে ভালুকা সাবরেজিস্টার বোরহান উদ্দিন জানান, আমাকে বনবিভাগের যৌথ জরিপ সহ উপযুক্ত কাগজ দেখানোর পরই জমি রেজিস্ট্রি করেছি, দলিলে যদি কোন প্রকার তথ্যগোপন করে থাকে সে দায় আমার নয়। এটা দলিল লেখকের বিষয়।

ভালুকা রেঞ্জ অফিসার মোজাম্মেল হোসেন জানান হবিরবাড়ী মৌজার ১৮৫ নংদাগের যৌথজরিপ আদালতের স্থগিতাদেশ রয়েছে, তাছাড়া বনবিভাগের এন.ও.সি ব্যাতিত বন-অধ্যাসিত এলাকার জমি রেজিষ্ট্রি করতে পারেনা।


আরও পড়ুন