চেয়ারম্যানকে ‘কোপানোয়’ বরগুনায় বন্ধ বাস

বরগুনার বেতাগী উপজেলার সরিষামুড়ি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ও জেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইমাম হাসানের ওপর হামলার প্রতিবাদে জেলার সব সড়কে বাস চলাচল অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দিয়েছে মালিক-শ্রমিকরা।

শনিবার সকাল ১০টায় বরগুনা টাউন হল চত্বরে মানববন্ধন, মিছিল ও সমাবেশ করে তারা। উক্ত সমাবেশ থেকে এ ঘোষণা দেয়া হয়।

এ ধর্মঘটের কারণে বরগুনায় সব ধরণের বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। তবে অন্যান্য যানবাহন যথারীতি চলছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার দুপুরে ইউনিয়নের কালিকাবাড়ী এলাকায় ইউপি চেয়ারম্যান ইমাম হাসানের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। আহত অবস্থায় তাঁকে বরগুনা জেলা হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাঁকে বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। তাঁর দুই পা ও ডান হাত কুপিয়ে গুরুতর জখম করা হয়েছে। ধারালো অস্ত্রের কোপে হাড় কেটে ঝুলে আছে তাঁর বাঁ পা।

ইউপি চেয়ারম্যানের স্বজনদের অভিযোগ, পূর্বশত্রুতার জের ধরে এবং আসছে ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এই হামলা চালানো হয়েছে।

এ ঘটনার প্রতিবাদে সকালে বরগুনা শহরে বিক্ষোভ মিছিল করেন পরিবহন মালিক-শ্রমিকরা। মিছিল শেষে প্রেসক্লাব চত্বরে প্রতিবাদ সমাবেশ করেন তারা।

বক্তারা বলেন, যতক্ষণে আসামিদেরকে গ্রেপ্তার না করা হবে ততদিন এ আন্দোলন চলবে।

জেলা বাস মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সাহাবুদ্দিন সাবু বলেন, যুবলীগ নেতা ও ইউপি চেয়ারম্যান ইমাম হাসানের ওপর হামলার প্রতিবাদে জেলার সব রুটে বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

বেতাগী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী সাখাওয়াত হোসেন বলেন, ইউপি চেয়ারম্যানের ওপর হামলার ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি।


আরও পড়ুন