দেশের খবর - November 24, 2020

আমতলীতে সংঘর্ষে নিহত ১

বরগুনার আমতলী উপজেলার দড়িকাটা গ্রামে পূর্ববিরোধকে কেন্দ্র হামলা সংঘর্ষ মারধোরে আসমত আলী হাওলাদার (৮৫) নামে এক ব্যক্তি মারা গেছে। এ ঘটনায় আমতলী থানায় সোমবার গভীর রাতে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলা দড়িকাটা গ্রামের মো. আবু জাফর হাওলাদার (৪০) এর সাথে একই গ্রামের মামনুর রহমান মজিবর গংদের পারিবারিক বিরোধ রয়েছে। এ বিরোধকে কেন্দ্র করে ১০ নভেম্বর বিকাল ৪. ৩০ এর সময় মামনুর রহমান মজিবর গং মামলার বাদী আবু জাফর হাওলাদারের ভাই মো. জাকির হোসেন হাওলাদারের বাড়ীতে প্রবেশ করে বাড়ীতে থাকা লোকজনদের মারধোর করে গুরুতর জখম করেন। মারধোরে সালেহা (৬০) আচমত আলী হাওলাদার (৮৫) মর্জিনা বেগম (২৫) মারিয়া আক্তার (১৪) লিপি আক্তার (৩২)সহ ৬/৭ জনকে পিটিয়ে আহত করে ও শ্লিলতাহানী ঘটিয়ে বাড়ীতে থাকা স্বর্নালংকার ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করেন। চিকিৎসা শেষে বাড়ী যাওয়ার পর আচমত আলী হাওলাদার (৮৫) ২২ নভেম্বর রাত ৮ টার সময় বাড়ীতে বসে মারা যান। মারা যাওয়ার পর আমতলী হাওলাদারের লাশআমতলী থানায় নিয়ে আসেন স্বজনরা। আমতলী থানা পুলিশ ময়না তদন্তের জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করেন। এ ঘটনায় নিহতের ভাইর ছেলে আবু জাফর হাওলাদার বাদী হয়ে সোমবার রাতে প্রতিপক্ষ মো. মামনুর রহমান মজিবর(৩৫) মো. শহিদুল ইসলাম(৪৫) মো. আরিফুর রহমান(২২) মোসা: মায়ানরু বেগম (৩০) মো. কালাই (৬৫) মোসা: নুর নাহার বেগম(৪০) মোসা: সেলিনা বেগম (২২) সহ ৭ জনসহ অজ্ঞাত নামা ৪/৫ জনকে আসামী করে আমতলী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

আমতলী থানার ওসি ( তদন্ত ) ও মমলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. হেলাল উদ্দিন মুঠোফোনে জানান, মামলার তদন্ত চলছে আসামীদের গ্রেফতারের জন্য জোর চেষ্টা চলছে।


আরও পড়ুন