মাশরাফীকে বাদ দেওয়া ‘সম্মিলিত সিদ্ধান্ত’

মাশরাফী বিন মোর্ত্তজাকে বাদ দিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডের প্রাথমিক দল ঘোষিত হয়েছে। তবে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়াটা সহজ ছিল না বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচক কমিটির প্রধান মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। তার কথায়, সবার সম্মিলিত সিদ্ধান্তেই কঠিন পথ বেছে নিয়েছেন তারা।

সোমবার দল ঘোষণার পর সংবাদ সম্মেলনে নান্নু বলেন, ‘ওর প্রতি আমাদের সম্মান সব সময় আছে। দেশের জন্য ও অনেক কিছু দিয়েছে। এটা একটা কঠিন সিদ্ধান্ত ছিল। তারপরও বাস্তবতা আমাদের মানতেই হবে। সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে।’

‘২০২৩ বিশ্বকাপে ফোকাস করে আমরা, টিম ম্যানেজমেন্ট সবাই সম্মিলিত ভাবে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। মাশরাফীকে বাদ দিতে হয়েছে।’

নান্নু যখন এ কথা বলছিলেন তখন পাশেই ছিলেন আরেক নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমন।

নান্নু যোগ করেন, ‘টিম ম্যানেজমেন্ট, ফিটনেস ট্রেনার, বোলিং কোচ, সবাই সম্মিলিতভাবে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এখানে কারও কোনো দ্বিমত ছিল না।’

গত মার্চে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ দিয়ে ওয়ানডের অধিনায়কত্বকে বিদায় জানান মাশরাফী। সেই সময় ও পরে অনেকবার বলেছেন, খেলা চালিয়ে যেতে চান তিনি। জাতীয় দলে সুযোগ না হলেও খেলে যাবেন ঘরোয়া ক্রিকেট।

সম্প্রতি বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের শেষ দিকে জেমকন খুলনায় যোগ দেন মাশরাফী। দলের শিরোপা জয়ে রাখেন দারুণ ভূমিকা। বয়স ৩৭ হলেও মাশরাফীর এমন পারফরম্যান্সে তার ভক্তদের অনেকেই আশায় ছিলেন ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে বিবেচনায় থাকবেন নড়াইল এক্সপ্রেস। কিন্তু আদতে ২৪ জনের প্রাথমিক দলেও তার ঠাঁই হয়নি।

ইনজুরির কারণে ক্যারিয়ারে অনেকবারই ছিটকে যেতে হয়েছে তাকে। তবে ২০১১ বিশ্বকাপে ফিটনেসের কারণে বিতর্কিতভাবে দলে জায়গা না পাওয়ার ঘটনা ছাড়া মাশরাফীর দল থেকে বাদ পড়ার ঘটনা এবারই প্রথম।

নান্নু বলেন, ‘এখানে অনেক ইস্যু এসেছে। টিম ম্যানেজমেন্ট আমাদেরকে অনেক কিছুর পরিকল্পনা দিয়েছে এবং আমরাও আমাদের পরিকল্পনা নিয়ে অনেক আলোচনা করেছি। অনেক আলোচনার পরই সিদ্ধান্তে এসেছি এবং বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য, দেশের ক্রিকেটের কথা চিন্তা করে, ভবিষ্যতে এগিয়ে যাওয়ার কথা চিন্তা করে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

প্রধান নির্বাচকের কথায় বারবার এসেছে ২০২৩ বিশ্বকাপের ভাবনা। তিনি বলেন, ‘তরুণ ক্রিকেটারদের তো আমাদের জায়গা দিতে হবে। ওদের সুযোগ করে দিতে হবে। এই যে নতুনভাবে চলা, ওর জায়গায় যে খেলবে, তার জন্য অবশ্যই এটা অনেক বড় সুযোগ। একজন ক্রিকেটারকে আমরা গড়ে তুলব।’


আরও পড়ুন